শ্রীনগরে সংখ্যালঘুর বাড়ি দখলের পায়তারা

শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি

শ্রীনগরে সংখ্যালঘুর বাড়িতে বেড়া দিয়ে বাড়িটি দখলের পায়তারা করার অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার ভাগ্যকুল এলাকায় রাজবংশী পাড়ায় এঘটনা ঘটে। ওই সংখ্যালঘু পরিবারটি এখন মানবেতর জীবন যাপন করছে।

স্থানীয়রা জানান, ভাগ্যকুল বাজারের মাছের আড়ৎদার ও মান্দ্রা গ্রামের মফিউদ্দিন হাওলাদার তার লোকজন নিয়ে কয়েকদিন আগে জোরপূর্বক মেঘা রানী রাজবংশীর বাড়িতে বেড়া দেয়। মফিজউদ্দিন ৪ শতাংশ জায়াগা ক্রয়সূত্রে সম্পত্তির দাবি করে বাড়িটি দখলের পায়তারা করছেন। সূত্রমতে জানাযায়, ওই জায়গার মালিক গান্ধী রাজবংশী মৃত্যুর আগে ১৯৯০ সালে কামারগাঁও মৌজার (খতিয়ান নং-১৮১১) হালে আরএস দাগ নং- ৪২১২ (বাড়ি) ৩.৬২ শতাংশের মধ্যে ২ শতাংশ জায়গা তার স্ত্রীর নামে লিখে দেয় (দলিল নং-৩৫-৩৯)। অথচ ১৯৯৬ সালের একটি দলিল (দলিল নং-২১২৩) দেখিয়ে মফিজউদ্দিন ওই জায়গা ক্রয়সূত্রে ৪ শতাংশের মালিকানা দাবি করেন!

ভুক্তভোগী মেঘা রানী রাজবংশী বলেন, আমি ও আমার ছেলে গোপাল রাজবংশী কখনই কোনদিন কোন দলিলে স্বাক্ষর দেইনি। মফিজউদ্দিন হাওলাদার ও তার ছেলে সিরাজুল হাওলাদার তাদের লোকজন নিয়ে আমার বসতবাড়িতে সিমেন্টের খুঁটি এবং বাশ দিয়ে বেড়া দেয়। তারা হুমকি-ঘমকি দেয়ার পাশাপাশি এখন বাড়িটি দখলের পায়তারা করছেন। এ অবস্থায় পরিবারের লোকজন নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছি।

মফিজউদ্দিন হাওলাদারের ছেলে সিরাজুল ইসলাম হাওলাদারের কাছে এবিষয়ে জানতে চাই তিনি ভাগ্যকুল ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি পরিচয় দিয়ে বলেন, আমরা ক্রয়সূত্রে ওই সম্মত্তির মালিক। নিজেদের জায়গায় বেড়া দিয়েছেন বলে তিনি দাবি করেন।

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box