লক্ষ্মীপুরে পারিবারিক বিরোধে হামলা, ভাংচুর, লুটপাঠ, আহত-২

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি ঃ লক্ষ্মীপুরে একই বাড়ীতে পারিবারিক বিরোধে প্রতিপক্ষের অতর্কিত হামলায় নয়ন বেগম (৩০), আমেনা বেগম (৩৩) গুরুতর আহত হয়েছে। এসময় হামলাকারীরা ভাংচুর ও লুটপাঠ চালায়। পরে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে হামলাকারীদের কাছ থেকে নয়ন বেগম ও আমেনা বেগমকে উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে পাঠান। চিকিৎসা শেষে নয়ন বেগম বাদী হয়ে লক্ষ্মীপুর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
ঘটনাটি ঘটে, শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) জুম্মার নামাজের সময় লক্ষ্মীপুর পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের বাঞ্চানগর গ্রামের সওদাগর বাড়ীর চৌ-চালা টিনের ঘরে।
এজাহার সূত্রে জানা যায়, একই বাড়ীর মোঃ সফিকুল ইসলামের পুত্র আব্দুর রহমান, মৃত মুজাফ্ফর আলীর পুত্র মোঃ সফিকুল ইসলাম, মৃত আব্দুল খালেক এর পুত্র আমির হোসেন, আমির হোসেনের পুত্র নীরব পূর্ব শক্রতার জের ধরে দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্রে সজ্জ্বিত হয়ে জুম্মার নামাজের সময় অতর্কিত হামলা চালিয়ে আজাদ হোসেনের স্ত্রী নয়ন বেগম ও সোলেমান এর স্ত্রী আমেনা বেগম পিটিয়ে মারাত্মক হাঁড়ভাঙ্গা আহত ও শ্লীলতাহানী করে। এসময় হামলাকারীরা ঘরের দরজা-জানালা, বেড়া, ঘরের আসবাবপত্র কুপিয়ে- পিটিয়ে ভাংচুর ও লুটপাঠ চালিয়ে ১৪ আনা ওজনের স্বর্ণের চেইন যাহার অনুমান মূল্য- ৫৫ হাজার টাকা, ঘরে থাকা নগদ ৫০ হাজার টাকা, ঘরে রক্ষিত প্রায় ১ লাখ ৫০ হাজার টাকার স্বর্ণালংকারও ৪০ হাজার টাকা মূল্যের মোবাইল নিয়ে প্রায় ৫ (পাঁচ) লাখ টাকার ক্ষতি সাধন করে। এছাড়াও আমাদের পালিত প্রায় ৫০ হাজার টাকার মুরগী পিটিয়ে মেরে ফেলে।
মামলার বাদী নয়ন বেগম জানান, জুম্মার নামাজের সময় ঘরের পুরুষরা জখন নামাজে ঠিক তখন আব্দুর রহমানের নেতৃত্বে তারা দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্রে সজ্জ্বিত হয়ে আমাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় হামলাকারীরা আমাদের পিটিয়ে আহত করে। আমাদের ঘরের উপরও হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাঠ চালায়। এতে আমাদের প্রায় ৫ লাখ টাকার ক্ষতি সাধন হয়েছে। এমনকি আমাদের পালিত টার্কি মুরগীসহ অনেকগুলো মুরগী পিটিয়ে মেরে ফেলে। এছাড়াও হামলাকারী যাওয়ার সময় হুমকী-ধমকী দিয়ে বলে যে এ ব্যাপারে আইনের আশ্রয় নিলে প্রাণে হত্যা করে লাশ ঘুম করে ফেলবে এমনকি মিথ্যা মামলা দিয়ে আমাদের সবাইকে হয়রানী করা হবে। বর্তমানে আমরা চরম নিরাপত্তা হিনতাই আছি।

Facebook Comments Box