রামগঞ্জের সেই ব্রিজের বিল গোপনে উত্তোলন

রামগঞ্জ (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার ৬নং লামচর ইউনিয়নের দাসপাড়া কুইয়ার বাড়ির সামনে ওয়াপদা খালের ওপর নির্মাণাধীন ফাটল ব্রিজের বিল গোপনে উত্তোলন করা হয়েছে। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার, উপ-সহকারী প্রকৌশলীর সাথে গোপন চুক্তিতে রোববার সকালে হিসাব রক্ষকের কার্যালয় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান বিল উত্তোলন করে নিয়ে যায়।

বিষয়টি জানাজানি হলে বিভিন্ন ঠিকাদারসহ সর্বমহলে চরম ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।

সূত্রে জানা যায়, ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রণালয়ের ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে ৩২ লক্ষাধিক টাকা বরাদ্দ হওয়ায় ব্রিজটি নির্মাণ শেষ না হতেই বিভিন্ন স্থানে ফাটল ধরে।

এনিয়ে ২৬ জুন বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের মাঝে ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এ ঘটনায় কয়েকজন ঠিকাদার বলেন, ভারপ্রাপ্ত প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার মোশাররফ হোসেন, উপ-সহকারী প্রকৌশলী জুয়েল রানা জাফলং এন্টারপ্রাইজের সত্তাধিকারী সেলিম হোসেনের থেকে মোটা অংকের আর্থিক সুবিধা নিয়ে গোপনে বিল প্রদান করেছেন।

উপজেলা হিসাব রক্ষক অফিসের অডিটর রুহুল আমিন বলেন, মানসম্মতভাবে ব্রিজটি নির্মাণ করা হয় মর্মে ব্রিজ নির্মাণে সংশ্লিষ্ট অফিসাররা ছাড়পত্র দিয়েছেন। প্রয়োজনীয় সকল কাগজপত্র থাকায় বিলটি হিসাব রক্ষকের টেবিলে পাঠালে তিনি ২৪ লাখ ৩০ হাজার ২২৯ টাকার বিল ছাড় দেন।

এ ব্যাপারে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও জাফলং এন্টারপ্রাইজের সত্তাধিকারী সেলিম হোসেনকে পাওয়া যায়নি।

উপজেলা ভারপ্রাপ্ত পিআইও (প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার) মোশাররফ হোসেন বলেন, জুন ক্লোজিংয়ের কারণে বিলটি উত্তোলন করে পে-র্অডার করে আমাদের কাছে রাখা হয়েছে। কাজ শেষ করার পরেই ওই টাকা প্রদান করা হবে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box