রমজানের দ্বিতীয় জুমাতে মুসল্লিদের ঢল

আলোকিত সকাল ডেস্ক

পবিত্র মাহে রমজানের দ্বিতীয় জুমার নামাজে রাজধানীসহ সারা দেশের মসজিদে ঢল নামে মুসল্লিদের। অধিকাংশ মসজিদের ভেতর ও বারান্দায় স্থান না হওয়ায় মুসল্লিরা মসজিদের ছাদ,রাস্তায় ছালার চট, মাদুর বিছিয়ে নামাজ আদায় করেন।

বিশ্বের মুসলমানদের কাছে সবচেয়ে ফজিলতপূর্ণ মাসটির নাম মাহে রমজান। আর সপ্তাহের সবচেয়ে ফজিলতপূর্ণ দিনের মধ্যে রয়েছে পবিত্র জুমার দিন। জুমার নামাজের আজানের আগ থেকেই মসজিদে মসজিদে মুসল্লিদের উপস্থিতি শুরু হয়। নামাজের আগেই তা কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে যায়। জুমার নামাজে রোজার গুরুত্ব ও তাৎপর্য তুলে ধরে খুতবা পাঠ করেন খতিবরা। এছাড়া নামাজ শেষে দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা এবং আল্লাহর দরবারে গুনাহ মাফ চেয়ে মোনাজাত করা হয়।

জুমার নামাজ মুসল্লিদের কাছে অনেক গুরুত্ব বহন করে। আর তা যদি হয় রমজান মাসের জুমার নামাজ তাহলে এর তাৎপর্য বহু গুণ বেড়ে যায়। রমজান মাসে জুমার নামাজের গুরুত্ব ও ফজিলত বেশি হওয়ায় মুসল্লিরা বিশেষ গুরুত্বের সঙ্গে এ নামাজ আদায় করেন। এজন্য রমজানের প্রত্যেকটা জুমার নামাজে রোজাদাররা আল্লাহর বিশেষ আনুকূল্য পাওয়ার জন্য মসজিদে যান। দেশের অধিকাংশ মসজিদগুলোতে এর ব্যতিক্রম হয়নি। ঢাকার বাইরে অন্য মহানগরী ও বড় শহরের কেন্দ্রীয় মসজিদগুলোতেও জুমার নামাজ আদায়ে মুসল্লিদেও ছিলো উপচে পড়া ভিড়। প্রতিনিধিরা এমন তথ্যই জানিয়েছেন।

রমজান মাসের দ্বিতীয় জুমায় রাজধানীর জাতীয় মসজিদ বাইতুল মোকাররম, মহাখালীর মসজিদ গাউছুল আজম, হাইকোর্ট জামে মসজিদ, লালবাগ শাহী মসজিদ, চকবাজার শাহী মসজিদ, গুলশানের আজাদ মসজিদ, ধানমন্ডি সেন্ট্রাল মসজিদ, সুপ্রীমকোর্ট জামে মসজিদ, সোবহানবাগ মসজিদ, এলিফ্যান্ট রোড মসজিদ, বনানী বাজার মসজিদ, মহাখালী বায়তুল মাহফুজ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদ, মতিঝিল ওয়াপদা মসজিদ, কারওয়ানবাজার আম্বরশাহসহ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার জামে মসজিদে লাখো লাখো মুসল্লি রমজানের দ্বিতীয় জুমার নামাজ আদায় করেন। এসব মসজিদের নামাজের খুতবায় রমজানের বিশেষ গুরুত্ব তুলে ধরে বয়ান করা হয়।

এছাড়া জুমার নামাজ শেষে খতিব ও ইমামগণ দেশ-জাতি ও মুসলিম উম্মার কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করেন। নামাজ শেষে মুসল্লিরা পিতা-মতাসহ মুরব্বিদের কবর জিয়ারত করেন।

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box