তিস্তা-ধরলাসহ সব নদী-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত

আলোকিত সকাল ডেস্ক

টানা ভারী বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে লালমনিরহাটের তিস্তা ব্যারেজের ডালিয়া পয়েন্টে তিস্তা নদীর পানি শনিবার (২৯ জুন) সকালে বিপদসীমার ২২ সেন্টিমিটার নিচে দিয়ে প্রবাহিত হয়। যে কোন সময় পানি বিপদসীমা অতিক্রম করতে পারে বলে জানা গেছে।

এদিকে, তিস্তা-ধরলাসহ ছোট-বড় সবগুলো নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় পাটগ্রাম উপজেলায় অবস্থিত দেশের বহুল আলোচিত ছিটমহল দহগ্রাম-আঙ্গুরপোতাসহ হাতীবান্ধা, কালীগঞ্জ, আদিতমারী ও সদর উপজেলার নদী সংলগ্ন চরাঞ্চলগুলো প্লাবিত হয়েছে। তিস্তার পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় হাতীবান্ধা উপজেলার দোয়ানীতে অবস্থিত দেশের সর্ব বৃহত্তম সেচ প্রকল্প তিস্তা ব্যারাজের ৪৪টি গেট খুলে দিয়ে পানি নিয়ন্ত্রণ করছে পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ।
পানি উন্নয়ন বোর্ড ডালিয়া বিভাগের বিভাগীয় প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম জানান, তিস্তার পানি ডালিয়া পয়েন্টে শনিবার সকালে বিপদসীমার ২২ সেন্টিমিটার নিচে দিয়ে প্রবাহিত হয়।

উল্লেখ্য, ভারত নিয়ন্ত্রিত গজলডোবা ব্যারেজের গেট খুলে দেয়ার কারণে বাংলাদেশের তিস্তায় থেমে থেমে পানি বৃদ্ধি পায়।

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box