চাপ বাড়ল মাশরাফিদের

আলোকিত সকাল ডেস্ক

নিউজিল্যান্ড-পাকিস্তান ম্যাচের দিকে অধীর আগ্রহে চেয়েছিলেন বাংলাদেশের দর্শকরা। পাকিস্তান হেরে গেলে বাংলাদেশের সেমিফাইনালে খেলার সম্ভাবনা বাড়ত। কিন্তু নিউজিল্যান্ড গতকাল রাতে ইংল্যান্ডের এজবাস্টনে পাকিস্তানের কাছে ৬ উইকেটে হেরে যাওয়ায় চাপ বাড়ল মাশরাফি বাহিনীর।

কারণ সমান সাত খেলা শেষে উভয় দলেরই সংগ্রহ ৭ পয়েন্ট। বাংলাদেশ ও পাকিস্তান এখন চতুর্থ স্থানে থাকা ইংল্যান্ডের চাইতে কেবল এক পয়েন্টে পিছিয়ে। নেট রান রেটে বাংলাদেশ অবশ্য পাকিস্তানের চাইতে এগিয়ে।

উভয় দলের হাতে এখন খেলা আছে দুটি করে। বাংলাদেশের পরের খেলা ভারতের সঙ্গে। অপরদিকে আফগানিস্তানের মুখোমুখি হবে পাকিস্তান। এরপর শেষ খেলায় লড়বে দেশ দুটি। সেমিফাইনালের আশা জিইয়ে রাখতে হলে বাংলাদেশকে উভয়টিতেই জিততে হবে।

বাবর আজমের সেঞ্চুরি ও হারিস সোহেলের হাফ সেঞ্চুরিই পাকিস্তানকে পাঁচ বল থাকতেই জিতিয়ে দেয়। দলীয় ৪৪ রানে দুই উইকেট পড়ে যাওয়ার পর জয়ের জন্য ২৩৮ লক্ষ্যে দুজনে মিলে তোলেন ১৬৯ রান। ম্যান অব দ্য ম্যাচ বাবর ১২৭ বলে ১১টি চারের মারে ১০১ রান করে অপরাজিত থাকেন। হারিস ৬৮ রান করে আউট হয়ে যান। তার ৭৬ বলের ইনিংসে ছিল দুই ছক্কা ও পাচটি চারের মার। এর আগে মাত্র ৮৩ রানে পাঁচ উইকেট হারানোর পরও জিমি নিশম (৯৭) ও কলিন ডি গ্রান্ডহোমের (৬৪) অসামান্য ব্যাটিংয়ে ছয় উইকেটে ২৩৭ রান তুলেছিল নিউজিল্যান্ড। জিমি নিশম ৯৭ রানে অপরাজিত থাকেন।

পাকিস্তানি পেসাররা খেলার শুরুতেই নিউজিল্যান্ডকে কাঁপিয়ে দিয়েছিলেন । দলীয় পাঁচ রানে মার্টিন গাপটিলকে বোল্ড করে ফেরান দূরন্ত ফর্মে থাকা মোহাম্মদ আমির। এরপর ত্রাস হয়ে ওঠেন শাহিন আফ্রিদি। তিনি পরপর তিন উইকেট তুলে নেন। ফেরান কলিন মুনরো, রস টেলর ও টম লাথামকে। ফলে ৪৬ রানে চার উইকেট হারিয়ে ফেলে নিউজিল্যান্ড।

ফর্মে থাকা অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন এখান থেকে প্রতিরোধের চেষ্টা করেছিলেন; কিন্তু ৪১ রান করে তিনি শাদাব খানের শিকার হন। ফলে ৮৩ রানে পঞ্চম উইকেট হারিয়ে ফেলে নিউজিল্যান্ড। তারপরও পাল্টা আক্রমণে চেষ্টা চালিয়ে গিয়েছিলেন নিশম ও গ্রান্ডহোম।

দুই জনে ১৩২ রানের জুটি গড়েন। ডি গ্রান্ডহোম একেবারে শেষ বেলায় এসে আউট হয়ে যান। তার আগে ৭১ বলে ছয়টি চার ও এক ছক্কায় ৬৪ রান করেন। অন্য দিকে নিশম শেষ বল পর্যন্ত লড়াই করেছেন। তার ১১২ বলে তোলা অপরাজিত ৯৭ রানের ইনিংসে ছিল পাঁচটি চার ও তিন ছক্কার মার। যদিও খেলা শেষে এসব যথেষ্ট প্রমাণিত হয়নি।

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box