কিশোরগঞ্জে বাজিতপুরের এই প্রথম মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের নেতা হলেন কাউছার আহমেদ সারোয়ার

নজরুল ইসলাম জুয়েল

শুক্রবার (২৮ জুন) সকালে গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে কমিটির তালিকা প্রকাশ করা হয়।

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানি এবং ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ ইব্রাহিম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান হৃদয় এ স্বাক্ষরিত ওই তালিকায় পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়। ২৭১ সদস্য বিশিষ্ট ওই কমিটিতে সহ-সভাপতি পদে ইউরোপীয় ইউনিভার্সিটির মেধাবী ছাত্র কাউছার আহমেদ সারোয়ার কে নির্বাচিত করা হয়।

কাউছার আহমেদ সারোয়ার এর গ্রামের বাড়ি কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর উপজেলার পশ্চিম ভাগলপুর গ্রামে।

দীর্ঘদিন ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে কাউছার আহমেদ সারোয়ার সক্রিয় ভাবে জড়িত আছেন। তিনি ছাত্রলীগের আসন ভিত্তিক কিশোরগঞ্জ -৫ আলহাজ্ব মোঃ আফজাল হোসেন এমপির পক্ষে নির্বাচন পরিচালনার সমন্বয়কের কমিটিতে দায়িত্ব পালন করেন। এ ছাড়াও তিনি ২০০৯ সালে বাজিতপুরে শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদ এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন বলে জানা গেছে। তিনি কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সদস্য হিসাবে কমিটিতে আছেন।
তিনি ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সম্পাদক হিসাবে ও দায়িত্ব পালন করেন।

কাউছার আহমেদ সারোয়ার এর আপন বড় ভাই সাইফুল ইসলাম কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন। তার পরিবারের সবাই আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে সক্রিয় ভাবে জড়িত আছেন।

তিনি বাংলাদেশ ইলেক্টোমেডিকেল ছাত্র সংসদ এর আহ্বায়ক হিসাবেও দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও তিনি সামাজিক সংগঠনের জড়িত। ছাত্র রাজনীতি শুরু করেছেন স্কুল থাকাকালীন সময় থেকে। ক্লিন ইমেজের ছাত্র নেতা হিসেবেই পরিচিত কাউছার আহমেদ সারোয়ার ।
তার ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের রাজনীতি শুরু হয় আজিজুল হক রানা সাবেক সাধারণ সম্পাদক, ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগ ও বর্তমান ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এর হাত ধরে তার রাজনীতি শুরু।

কাউছার আহমেদ সারোয়ার সহ-সভাপতি নির্বাচিত হওয়া বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সংগ্রামী সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী এবং ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ ইব্রাহিম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান হৃদয় এর প্রতি চির কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং ভবিষ্যতেও পরিচ্ছন্ন রাজনীতি করে যেতে চান ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা লালন করে সামনের দিনগুলোতে কাজ করবেন বলে আশা ব্যক্ত করেন।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ১১ ও ১২ মে ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। একই বছরের ৩১ জুলাই রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনকে ছাত্রলীগের সভাপতি ও গোলাম রাব্বানীকে সাধারণ সম্পাদক করে ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা করা হয়।

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box