মশক শ্রমিকের এবার চাকরি গেল ডিএসসিসির
নগর ভবন

মশক শ্রমিকের চাকরি গেল ডিএসসিসির

নিজস্ব প্রতিবেদক

লার্ভিসাইডিংয়ের কীটনাশক ড্রেনে ফেলে দিয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন তথা সরকারের সম্পদ নষ্টের দায়ে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মশক শ্রমিক রাজন দাসকে।

অস্থায়ীভাবে দৈনিক মজুরির ভিত্তিতে কর্মরত অদক্ষ মশক শ্রমিক রাজন দাস ইচ্ছাকৃতভাবে লার্ভিসাইডিংয়ের জন্য ব্যবহৃত কীটনাশক ড্রেনে ফেলে দেয়ায় তাকে চাকরিচ্যুত করা হয়।

একই সঙ্গে, মশক নিধন কার্যক্রম সুপারভাইজিংয়ে দায়িত্ব পালনে অবহেলার জন্য অঞ্চল-২ এর সুপারভাইজার মনিরুজ্জামানকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কর্মচারী চাকরি বিধিমালা/২০১৯ এর ৪৯ উপ-বিধি মোতাবেক মনিরুজ্জামানকে দায়িত্ব পালনে অবহেলা ও অসদাচরণের জন্য কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয় এবং আগামী তিন কর্মদিবসের মধ্যে সিটি করপোরেশনের সচিব বরাবর কারণ দর্শানোর নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়।

উল্লেখ্য, গত ৭ জুন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ২৫নং ওয়ার্ডের আওতাধীন লালবাগের নবাবগঞ্জ পার্কে মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস ‘বছরব্যাপী সমন্বিত মশক নিধন’ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। সে সময় লার্ভিসাইডিং কার্যক্রম সুপারভাইজ করতে মনিরুজ্জামানকে নির্দেশনা প্রদান করলেও তিনি সে সময় অনুপস্থিত ছিলেন এবং তার অনুপস্থিতির সুযোগে মশক শ্রমিক রাজন দাস লার্ভিসাইডিংয়ের জন্য ব্যবহৃত কীটনাশক ড্রেনে ফেলে দিয়ে করপোরেশনের সম্পদ নষ্ট করেন।

পরবর্তীতে এ বিষয়ে মেয়র তাপসের কাছে অভিযোগ করা হলে অভিযোগের সত্যতা সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে রাজনকে চাকরিচ্যুত ও মনিরুজ্জামানকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়ার নির্দেশনা দেন।

Facebook Comments Box