২ থেকে ৪ জুনের টিকিটের চাহিদা বেশি

আলোকিত সকাল ডেস্ক

আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষে শুক্রবার শুরু হয়েছে বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি। সকাল থেকে বাস কাউন্টারগুলোতে রয়েছে টিকিট প্রত্যাশীদের ভিড়। যাত্রীদের কাছে ২ থেকে ৪ জুনের টিকিটের চাহিদা বেশি।

শুক্রবার রাজধানীর সায়েদাবাদ ও ফুলবাড়িয়া টার্মিনালে গিয়ে টিকিট প্রত্যাশীদের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা গেছে।

ঈদের আগের তিন দিন অর্থাৎ ২ থেকে ৪ জুনের টিকিট সংগ্রহ করতে ভোররাত থেকে কাউন্টারগুলোতে ভিড় করেছেন টিকিটপ্রত্যাশীরা। ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থেকেও তারা কাঙ্ক্ষিত টিকিট পাচ্ছেন না। অনেকের অভিযোগ, কাউন্টারের লোকজনকে অতিরিক্ত টাকা দিলেই কাঙ্ক্ষিত টিকিট পাওয়া যাচ্ছে।

পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী সকাল ৮টা থেকে টিকিট বিক্রি শুরু হলেও টিকিট সংগ্রহের উদ্দেশ্যে ভোর থেকেই কাউন্টারের সামনে এসে লাইনে দাঁড়িয়েছেন অনেকে।

সায়েদাবাদ বাস টার্মিনালে রয়েল, স্টার লাইন, তিশা, দোয়েল, ঈগল, হানিফ, সোহাগ, শ্যামলী, একে ট্রাভেলস, এস আলমসহ বিভিন্ন পরিবহন কাউন্টারে রয়েছে মানুষের দীর্ঘ লাইন।

সায়েদাবাদে টিকিট কিনতে আসা নেয়ামুল করিম রাইজিংবিডিকে জানান, চট্টগ্রামের জন্য ৩ জুনের টিকিট কিনতে ভোররাতে লাইনে দাঁড়িয়েছেন। এস আলম কাউন্টারে সকাল ৮টায় টিকিট বিক্রি শুরু হওয়ার দুই ঘণ্টা পর কাউন্টার থেকে বলা হচ্ছে টিকিট শেষ। পরে কাউন্টারের লোকজনকে অতিরিক্ত টাকা দিয়ে টিকিট সংগ্রহ করেছেন।

রয়েল পরিবহনের কাউন্টার মাস্টার রুবেল রাইজিংবিডিকে জানান, ২ জুন থেকে ৫ জুনের টিকিটের চাহিদা বেশি। ঢাকা-কুমিল্লার ভাড়া ৩০০ টাকায় টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। কারো কাছ থেকে বাড়তি টাকা নেওয়া হচ্ছে না।

এদিকে, সায়েদাবাদে ২ থেকে ৪ জুনের টিকিট পেয়ে আনন্দ করতে দেখা গেছে অনেককে। আর যারা পাননি তারা চেষ্টা করছেন একটু বেশি দাম দিয়ে হলেও ওই দিনগুলোর টিকিট সংগ্রহের।

সায়েদাবাদ হানিফ বাস কাউন্টারে কথা হয় আবুল কাশেমের সঙ্গে। তিনি রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘অগ্রিম টিকেট বিক্রি শুরু হওয়ার তিন ঘণ্টার মধ্যেই ২ থেকে ৪ জুনের সব টিকেট বিক্রি শেষ হয়ে গেছে। ৪ জুন পরিবার নিয়ে বাড়ি যাব, তাই ৪০০ টাকার টিকিট ৬০০ টাকা দিয়ে সংগ্রহ করেছি।’

হানিফ পরিবহনের কাউন্টার ম্যানেজার জি এম তসলিম রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘আগামী ২ থেকে ৪ জুনের চট্টগ্রাম, বরিশাল বিভাগের ৩০টি বাসের ১২০০ টিকিট বিক্রি হয়েছে। আগামীকাল থেকে আবারো টিকিট বিক্রি করা হবে। যারা আজকে টিকিট সংগ্রহ করতে পারেনি তারা শনিবার টিকিট পাবেন। ’

তিনি বলেন, ‘প্যাসেঞ্জারের বেশি চাপ থাকলে অতিরিক্ত বাস যোগ করা হবে। সবাই টিকিট পাবেন। ’

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box