১৫ বছরে অলিম্পিক সোনা, ২২ বছরেই অবসর!

আলোকিত সকাল ডেস্ক

২০১২ লন্ডন অলিম্পিকে নারীদের ১০০ মিটার ব্যাকস্ট্রোক সাঁতারে সোনা জিতেছিলেন লিথুনিয়ার রুতা মেইলুতিত। ১৯৯৭ সালে জন্ম নেয়া মেইলুতিতের বয়স তখন মাত্র ১৫! বর্তমানে ২২ বছর বয়সী এই সাঁতারুর যখন নিজের ক্যারিয়ারটাকে আরো শানিয়ে নেয়ার কথা, ঠিক সেই মুহূর্তেই অবসরের ঘোষণা দিয়ে বসলেন তিনি! ২০১৩ সালের ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপে ১০০ মিটার ব্যাকস্ট্রোকে ১ মিনিট ৩৬ সেকেন্ড সময় নিয়ে বিশ্বরেকর্ড করেছিলেন মেইলুতিত। সেই রেকর্ড এখনো অক্ষত রয়েছে। মেইলুতিতের কোচ জন রাডের অভিমত, খেলা চালিয়ে গেলে সর্বকালের সেরা নারী ব্যাকস্ট্রোকার হতে পারতেন তিনি।

তবে কনুইয়ের ইনজুরিতে পড়ে ক্যারিয়ারটাই এলোমেলো হয়ে যায় মেইলুতিতের। ২০১৬ রিও অলিম্পিকে হন সপ্তম। এরপরই খেলোয়াড়ি জীবন নিয়ে হতাশা দানা বাঁধতে শুরু করে মেইলুতিতের মনে। আন্তর্জাতিক অ্যাথলেটিকস ফেডারেশনের সর্বশেষ তিনটি ড্রাগ টেস্টেও অংশ নেননি তিনি। আর এবার সুইমিং পুলকেই তিনি আজীবনের জন্য বিদায় জানানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে নিলেন। মেইলুতিত বলেন, ‘সাঁতারকে ধন্যবাদ। সাঁতার আমাকে এমন একটি জীবনের অভিজ্ঞতা দিয়েছে যার কথা আমি কখনো ভাবতেই পারিনি। পৃথিবীর বড় একটা অংশ দেখতে পেরেছি আমি, অনেক চমৎকার মানুষকে জানতে ও তাদের সাথে কাজ করতে পেরেছি।’

সাঁতারকে বিদায় দিয়ে এখন সাধারণ জীবন যাপন করতে চান ২২ বছর বয়সী এই তরুণী। তিনি বলেন, ‘আমি এখন সাধারণ বিষয়গুলোর অভিজ্ঞতা লাভ করতে চাই, বেড়ে উঠতে চাই, নিজেকে ও চারপাশের বিশ্বকে বুঝতে চাই।’

খেলোয়াড়ি জীবনের বাইরে গিয়ে নতুন করে পড়াশোনা শুরু করতে চান বলে জানান মেইলুতিত।

আস/এসআইসু

Facebook Comments