হাল ছাড়েননি পপি

আলোকিত সকাল ডেস্ক

দিন-রাত খুঁজে চলেছেন পপি। মনের মতো নাকি মিলছে না। কি বিষয় নিয়ে এত চিন্তিত তিনি? কি খুঁজছেন জাতীয় চলচ্চিত্রপুরস্কারপ্রাপ্ত এই নায়িকা? জানতে চাইলে পপি বলেন, আগেও আমি বেশ ভালো গল্পের ছবিতে অভিনয় করেছি। ভালো নির্মাতাদের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ হয়েছে আমার। এখন যেসব ছবিতে কাজের প্রস্তাব পাচ্ছি তা মোটেও আমাকে আকৃষ্ট করছে না। বিশেষ করে গল্প আমার কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। তাই প্রতিনিয়ত ভালো গল্প ও চরিত্র খুঁজছি আমি। অনেকদিন ধরেই দেখা যাচ্ছে এমন গল্পের বড় অভাব ইন্ডাস্ট্রিতে।

তবে হাল ছাড়েননি পপি। ভালো কাজ নিয়েই দর্শকের সামনে ফিরতে চান তিনি। চলতি বছর তার অভিনীত বেশ কিছু ছবির কাজ শেষ হবে। এরমধ্যে রয়েছে সাদেক সিদ্দিকীর ‘সাহসী যোদ্ধা’, কাজী আমিনুল ইসলামের ‘সেভ লাইফ’ ও আরিফুর জামান আরিফ পরিচালিত ‘কাঠগড়ায় শরৎচন্দ্র’। চলচ্চিত্রে অভিনয়ের পাশাপাশি পপি দুটি ওয়েব সিরিজেও কাজ করেছেন। এগুলো হচ্ছে অনন্য মামুনের ‘ইন্দুবালা’ এবং তৌহিদ মিটুলের ‘গেম গার্ডেন’। এরইমধ্যে এ দুটি ওয়েব সিরিজ প্রকাশের পর ভালো সাড়া পেয়েছেন তিনি। দুটি ওয়েব সিরিজেই প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন পপি।

আর সম্প্রতি শাহীন সুমনের ‘ক্যান্ডেল নাইট’ নামের টেলিছবিতে কাজ করেছেন তিনি। এখানে তার সহশিল্পী হিসেবে দর্শকরা আমিন খানকে দেখতে পাবেন। সাদেক সিদ্দিকীর ‘সাহসী যোদ্ধা’ ছবির কাজ এরইমধ্যে শেষ হয়েছে। এ ছবিতেও আমিন খানের বিপরীতে পপি অভিনয় করেছেন। বাকি ‘সেভ লাইফ’ ও ‘কাঠগড়ায় শরৎচন্দ্র’ ছবিতে চিত্রনায়ক ফেরদৌসের বিপরীতে দর্শকরা তাকে দেখতে পাবেন। উল্লেখ্য, ১৯৯৭ সালে মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত ‘কুলি’ সিনেমাতে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্রে অভিষেক হয় পপির। এ পর্যন্ত অনেক চলচ্চিত্রে অভিনয় করে সুনাম অর্জন করেছেন তিনি। ‘কারাগার’ (২০০৩), ‘মেঘের কোলে রোদ’(২০০৮) ও ‘গঙ্গাযাত্রা’ (২০০৯) সিনেমায় অভিনয় করে পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার।

আস/এসআইসু

Facebook Comments