স্পিনই গড়ে দেবে অজিদের ভাগ্য

আলোকিত সকাল ডেস্ক

অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক রিকি পন্টিং বলেছেন, তাদের বিশ্বকাপ সম্ভাবনা নির্ভর করছে স্পিন বোলিং এর ওপর। বিশ্বকাপে অজিদের স্পিন ডিপার্টমেন্ট কেমন বোলিং করে এবং অজি ব্যাটসম্যানরা কিভাবে প্রতিপক্ষ স্পিনারদের সামলান – এ দুটো বিষয় টুর্নামেন্টে অস্ট্রেলিয়ার ভাগ্য গড়ে দেবে বলে জানান পন্টিং।

প্রধান কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গারের সহকারী হিসেবে আপাতত অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ দলের সঙ্গে ইংল্যান্ডে আছেন রিকি পন্টিং। ১৯৯৬ থেকে ২০১১ – মোট ৫টি বিশ্বকাপ খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে তার। সেইসাথে ১৯৯৯ থেকে ২০০৭ পর্যন্ত টানা তিনটি বিশ্বকাপজয়ী অজি দলের সদস্যও ছিলেন তিনি। এর মধ্যে শেষ দুটি বিশ্বকাপ জয়ে দলের অধিনায়কত্বের ভার ছিল তার কাঁধে।

বর্তমান দলের খেলোয়াড়দের মধ্যে অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ, প্যাট কামিন্স, ডেভিড ওয়ার্নার ও মিচেল স্টার্ক এবং সহকারী কোচ ব্র্যাড হাডিন; এদের সবাই অস্ট্রেলিয়ার ২০১৫ সালে ঘরের মাঠে বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্য ছিলেন। গত বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ জয়ে প্রধান ভূমিকা রেখছিলো টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের সাফল্য ও মিচেল স্টার্কের আগুন ঝড়ানো বোলিং। দলের একমাত্র বিশেষজ্ঞ স্পিনার জাভিয়ের ডোহার্টিকে তারা খেলিয়েছিলো মাত্র ১ ম্যাচ!

তবে এবার অস্ট্রেলিয়ান বিশ্বকাপ স্কোয়াডে রাখা হয়েছে দু’জন স্পিনারকে। অ্যাডাম জাম্পা ও নাথান লিওনকে নিয়ে লেগস্পিন-অফস্পিন কম্বিনেশন গড়েছে তারা। শুধু অস্ট্রেলিয়াই নয় গত তিন বছর যাবত বিশ্বের প্রায় সব বড় দল স্পিন বোলারদের আলাদা গুরুত্ব দিচ্ছে। পন্টিং মনে করেন, একারণেই স্পিন বল খেলার প্রতিও এখন অতিরিক্ত জোর দিতে হবে।

দ্য টেলিগ্রাফকে পন্টিং বলেন, ‘বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার সাফল্যকে সংজ্ঞায়িত করবে দুটি বিষয়। প্রথমত, তারা কত ভালো স্পিন বল করতে পারে। দ্বিতীয়ত, তারা কত ভালো স্পিন খেলতে পারে। গত এক-দেড় বছর যাবত অস্ট্রেলিয়ার জন্য স্পিন একটি প্রধান সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। জাম্পা বেশ ভালো খেলছে, স্কোয়াডে লিওনের মতো বোলার আছে। ম্যাক্সওয়েলকেও যখনই সুযোগ দেয়া হয়েছে তখনই ভালো করেছে।

স্পিনের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের উন্নতিতে সন্তুষ্ট পন্টিং। তিনি বলেন, ‘আমাদের মিডল অর্ডার ১৮ মাস আগের তুলনায় স্পিনে এখন অনেক ভালো খেলছে। ওয়ার্নার ও স্মিথ চলে আসায় আমাদের দল স্পিনের বিপক্ষে এখন অনেক ভারসাম্যপূর্ণ।’

আস/এসআইসু

Facebook Comments