সাংবাদিক ফাগুনের দাফন সম্পুর্ণ শেরপুর প্রেসক্লাবের দুই দিনের কর্মসূচি গ্রহন

বুলবুল আহম্মেদ, শেরপুর প্রতিনিধি

চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন শেরপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাকন রেজার ছেলে, অনলাইন প্রিয় ডটকমের সাব এডিটর ও রাজধানীর তেজগাঁও কলেজের ট্যুরিজম ও হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের দ্বিতীয় সেমিস্টারের ছাত্র ইহসান ইবনে রেজা ফাগুন।

২৩ মে, বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টায় তেরাবাজার জামিয়া সিদ্দিকীয়া মাদরাসা মাঠে জানাজা শেষে তার মরদেহ বারোটায় শেরপুর সদরের চাপাতলি পৌর কবরস্থানে দাফন করা হয়। গতকাল বুধবার জামালপুরের নুুুুরুন্দি থেকে ফাগুনের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

২২ মে, বুধবার বিকেল ৩টার পর ফাগুনের বাবা জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক কাকন রেজা এ তথ্য জানিয়েছেন। এর আগে বুধবার সকাল ১০টার দিকে ফাগুনের নিখোঁজের সংবাদ জানান কাকন রেজা। এ সময় ছেলে নিখোঁজের বিষয়ে ময়মনসিংহ কোতোয়ালি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন তিনি।

ফাগুনের বাড়ি শেরপুর জেলা শহরে। তিনি তেজগাঁও কলেজে পড়াশোনার পাশাপাশি সাংবাদিকতা করতেন। সর্বশেষ তিনি প্রিয়.কমে সহ-সম্পাদক হিসেবে কাজ করেছেন। আরেকটি অনলাইনে তার যোগদানের বিষয়ে কথা চলছিল।

কাকন রেজা জানান, ২১ মে, মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে ফাগুন ঢাকার মহাখালী থেকে শেরপুরগামী একটি যাত্রীবাহী বাসে বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেন। এরপর বেশ কয়েকবার তার সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগও হয়। সর্বশেষ রাত সাড়ে ৮টায় যোগাযোগের সময় ফাগুন তার বাবাকে জানিয়েছিলেন তিনি ময়মনসিংহের কাছাকাছি অবস্থান করছেন। এরপর ফাগুনের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়।

বেলা ৩টার দিকে খবর পাওয়া যায়, জামালপুরের নুরুন্দি এলাকা থেকে মঙ্গলবার রাতে একটি মরদেহ উদ্ধার করেছে রেলওয়ে পুলিশ। পরবর্তী সময়ে নিশ্চিত হওয়া যায়, সেটি ফাগুনের মরদেহ।এদিকে সাংবাদিক ফাগুনের হত্যার বিচারের দাবিতে শেরপুর প্রেসক্লাবের দুই দিনের কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।এ বিষয়ে মেরাজ উদ্দিন জানান,যে কর্মসূচি টি নেওয়া হয়েছে তাহচ্ছে আগামী শুক্রবার মসজিদে মসজিদে দূআ ও শনিবার সকাল ১১ টায় থানার মোড়ে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হবে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments