শেরপুরে টানা বৃষ্টিতে স্থবির হয়ে পড়েছে ঈদের বিকিকিনি

বুলবুল আহম্মেদ, শেরপুর প্রতিনিধি

সকাল থেকেই টানা বৃষ্টিতে স্থবির জয়ে পড়েছে শেরপুরের ঈদের বিকিকিনি। হতদরিদ্র লোকজনের ঈদের কেনাকাটার অন্যতম পছন্দের জায়গা হচ্ছে, ফুটপাত। কিন্তু জেলা শহরের অধিকাংশ ফুটপাতের দোকানগুলোতে উপরের ছাউনি না থাকায় ব্যাবসায়ীরা তাদের পণ্য নিয়ে ফুটপাতে বসতে পারছেন না।

শহরের কাকলী মার্কেটের সামনে ফুটপাতের কাপড় ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান বলেন, প্রতিদিন গড়ে ১০-১৫ হাজার টাকা বিক্রি হয়। কিন্তু বৃষ্টির কারনে বেচা-বিক্রি একদম নেই বললেই চলে।

অন্যদিকে টানা বৃষ্টির কারনে জেলা শহরের অভিজাত শপিংমল থেকে শুরু করে হকার্স মার্কেটের-ফুটপাতের ব্যাবসায়ীরা ভুগছেন ক্রেতা শুন্যতায়। ঈদের আর ক’দিন বাকি থাকলেও বিক্রেতারা বলছেন, গত বছরের তুলনায় এ বছর এখন পর্যন্ত অর্ধেকও বেচা-বিক্রি হয়নি। এরই মধ্যে আবহাওয়ার এমন অবস্থা আমাদের খুব ক্ষতির সম্মুখীন করবে।

রবিবার জেলা শহরের নিউমার্কেট, কাকলী মার্কেট, তেরাবাজার মার্কেট,বিপি প্লাজা, পৌর কাম অডিটোরিয়াম মার্কেট,মোফাজ্জল প্লাজা, মুন্সী বাজারে সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে প্রায় সব দোকানই ক্রেতা শূন্য।

পৌর কাম অডিটোরিয়াম মার্কেটের ছাহেরা গার্মেন্টসের স্বতাধিকারী মোঃ শাহজাহান মিয়া জানান, বৃষ্টি ছাড়া অন্যন্যে সময়গুলোতে আমাদের বেচা-বিক্রি বেশী হয়। কিন্তু গত কয়েকদিনের টানা বৃষ্টিতে তা অর্ধেকর চেয়েও কমে নেমে পড়েছে। এভাবে চলতে থাকলে কর্মচারীদের বেতন-বোনাস দেওয়া কষ্টকর হয়ে পড়বে।

এদিকে ঈদের কেনাকাটা করতে এসে চাকুরিজীবী আলমগীর হোসেন জানান, সকালে বৃষ্টি কম দেখে পরিবারসহ শপিং করতে বেড়িয়েছি। কিন্তু ধীরে ধীরে বৃষ্টি বাড়াতে আজকের মত শপিং অর্ধসমাপ্ত রেখে বাসায় ফিরে যাচ্ছি।

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box