শাস্তির দাবিতে শিক্ষকদের মানববন্ধন

মো.আলমাছ আলী

কলেজ ক্যাম্পাসে চাদাঁবজি ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে জামালপুরের বকশীগঞ্জ সরকারি কিয়ামত উল্লাহ কলেজের অধ্যক্ষসহ শিক্ষক কর্মচারীদের বিরুদ্ধে অশালিন, মানহানিকর মন্তব্য ও প্রাণনাশের হুমকির প্রতিবাদ জানিয়ে মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন করেছেন কলেজ কর্তৃপক্ষ। বুধবার দুপুরে কলেজ ক্যাম্পাসে শিক্ষক পরিষদের ব্যনারে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি ফরহাদ রেজা ও সাধারণ সম্পাদক আদনান আকাশসহ জড়িতদের শাস্তির দাবি জানান তারা।

মানববন্ধন শেষে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে শিক্ষক পরিষদের সভাপতি অধ্যক্ষ প্রফেসর ইদ্রিস আলী লিখিত বক্তব্যে বলেন, চলমান ডিগ্রি পরীক্ষার ফরম ফিলাপকে কেন্দ্র করে গত ৯ মে বৃহস্পতিবার কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি ফরহাদ রেজা ও সাধারণ সম্পাদক আদনান আকাশের নেতৃত্বে একদল উচ্ছৃংখল ছাত্র কলেজ ক্যাম্পাসে এসে ২০ হাজার টাকা চাদাঁ দাবি করে।

চাদাঁ না দিলে অধ্যক্ষ ও ফরম পুরন কমিটির সদস্যদের অকথ্যভাষায় গালাগালি, মেরে ফেলার হুমকি দেয়। একপর্যায়ে ফরম পূরন কার্যক্রম বন্ধ করে দেয় তারা। এতে কলেজে ভীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। চরম নিরাপত্তাহীনতায় পরেন শিক্ষক-কর্মচারীরা। পরে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

এই ঘটনায় কলেজের সুষ্ঠ কর্ম পরিবেশ স্বাভাবিক রাখতে ও শিক্ষক-কর্মচারীদের নিরাপত্তার স্বার্থে ১৩ মে সোমবার রাতে কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ফরহাদ রেজা ও সাধারণ সম্পাদক আদনান আকাশসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৮/১০ জনকে আসামী করে বকশীগঞ্জ থানায় একটি চাদঁবাজি মামলা দায়ের করেন অধ্যক্ষ ইদ্রিস আলী। মামলা দায়েরের পর আসামীরা অধ্যক্ষসহ শিক্ষক-কর্মচারীদের প্রাণনাশের হুমকি ও তাদের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে অশালীন,আপত্তিকর ও মানহানিকর মন্তব্য করে আসছে। এর প্রতিবাদ জানিয়ে বুধবার দুপুরে শিক্ষক পরিষদের ব্যনারে মানববন্ধন ও সাংবাদিক সম্মেলন করেন শিক্ষকরা।

লিখিত বক্তব্যে কলেজের অধ্যক্ষ ইদ্রিস আলী আরো বলেন,চাদাঁবাজি মামলার প্রধান আসামী কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি ফরহাদ রেজা ও সাধারণ সম্পাদক আদনান আকাশ তাকে নানা ভাবে হুমকি দিয়ে আসছে। ফলে তিনিসহ কলেজের শিক্ষক কর্মচারীরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছেন। যে কোন মুহুর্তে কলেজ ক্যাম্পাসে সন্ত্রাসী হামলা হতে পারে বলে আশংকা করছেন বলেও জানান তিনি।

বকশীগঞ্জ থানার অফিসার্স ইনচার্জ এ.কে.এম মাহবুবুল আলম মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে কলেজে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments