লঙ্কার বিপক্ষে টাইগারদের দাপুটে জয়

আলোকিত সকাল ডেস্ক

শ্রীলঙ্কা বোর্ড প্রেসিডেন্ট একাদশের বিপক্ষে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে জিততে হলে বাংলাদেশের লক্ষ্য ছিল ২৮৩ রান। লড়াকু এই স্কোর তাড়া করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারের আগে ৫ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ।

লড়াকু এই লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুটা সাদামাটা হয় টাইগার দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকারের। সদ্য সমাপ্ত ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের মতই ধীর গতিতে ইনিংস শুরু করেন এই দুই ব্যাটসম্যান। দলীয় ৪৫ রানে সাজঘরে ফিরে যায় সৌম্য সরকার। আউট হওয়ার আগে করে ২৪ বলে মাত্র ১৩ রান। আর ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক তামিম ইকবাল আউট হয় ৪৭ বলে ৩৭ রান করে। এই দুই টপ অর্ডার ফিরে গেলে ক্রিজে এসে বাংলাদেশের রানের চাকা সচল করেন মোহাম্মদ মিথুন ও মুশফিকুর রহিম। এদিন দলের জন্য একাই লড়ে যান মিথুন। তবে লঙ্কান বোলারদের উপর তাণ্ডব চালিয়ে হাফ সেঞ্চুরি করে আউট হয় মুশফিক। প্যাভিলিয়নে ফিরার আগে করেন ৪৬ বলে ৫০ রান। আর ৩৩ রান করে আউট হয় সাইলেন ক্লিয়ার মাহামুদুল্লাহ রিয়াদ। এরপর সেঞ্চুরির দাড়প্রান্তে এসেও ৯১ রানে আউট হয়ে যান মোহাম্মদ মিথুন।

শেষের দিকে মোসাদ্দেককে সাথে নিয়ে বাকি কাজটুকু করেন সাব্বির রহমান। তাদের ব্যাটিং নৈপুণ্য একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ।

এর আগে টাইগারদের এলোমেলো বোলিংয়ে নির্ধারিত ৫০ ওভার খেলে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৮২ রান করে শ্রীলঙ্কা। শ্রীলঙ্কা বোর্ড প্রেসিডেন্ট একাদশের বিপক্ষে ম্যাচে টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্বান্ত নেয় নিরোশান ডিকওয়েলা। টস হেরে বোলিং করতে নেমে শুরুটা দুর্দান্ত রেছিলেন দুই পেসার রুবেল হোসেন ও তাসকিন আহমেদ। তবে শেষের দিকে ছন্ন ছাড়া বোলিংয়ে লড়াকু স্কোর পায় লঙ্কা।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে টাইগার বোলারদের বোলিং তোপে কোণঠাসা হয়ে পরে লঙ্কান ব্যাটিং লাইন। ইনিংসের প্রথম ওভারেই উইকেট হারায় স্বাগতিকরা। রুবেল হোসেনের করা ইনিংসের তৃতীয় বলে লেগ-বিফোরের ফাঁদে পড়ে সাজঘরে ফিরেছেন স্বাগতিক দলের অধিনায়ক নিরোশান ডিকভেলা। রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরে ফিরেন তিনি। এরপর ক্রিজে এসে স্থির হতে পারেননি ওশাদা ফার্নান্দোও। রুবেলের বলে মোসাদ্দেকের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরেন এই ব্যাটসম্যান। ২ রান করে ফার্নান্দো বিদায় নিলে দলীয় ২৮ রানে দ্বিতীয় উইকেটের পতন ঘটে স্বাগতিকদের। এরপর সফরকারীরা আবারও উইকেট প্রাপ্তির আনন্দে মাতে।

এ যাত্রায় দলকে সাফল্য এনে দেন স্পিড স্টার তাসকিন আহমেদ। ২৬ রান করা গুনাথিলাকাকে সাজঘরে ফেরান তিনি। এর ফলে দলীয় ৩২ রানে ৩ উইকেটের পতন ঘটে স্বাগতিক লঙ্কানদের। এরপর স্বাগতিকদের হাল ধরেন ভানুকা ও জয়াসুরিয়া। চতুর্থ উইকেট জুটিতে তারা যোগ করেন মূল্যবান ৮৪ রান। ইনিংসের ২৬তম ওভারে প্রথমবারের মতো বল করতে এসে দলকে ব্রেকথ্রু এনে দেন সৌম্য সরকার। এর কিছুক্ষণ পর অ্যাঞ্জেলো পেরেরাকে আউট করে উচ্ছ্বাসে মাতে কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান।

তবে একপ্রান্ত আগলে রাখা লঙ্কান ব্যাটসম্যান শেহান জয়াসুরিয়াকে ফিরিয়ে নিজের দ্বিতীয় শিকার তুলে নেন সৌম্য সরকার। আউট হওয়ার আগে এই ব্যাটসম্যান করেন ৭৮ বলে ৫৬ রান। তবে শেষদিকে দাশুন শানাকা ৬৩ বলে ৮৬ রানের অপরাজিত ঝড়ো ইনিংস খেলে দলীয় সংগ্রহটি নিয়ে যান ৮ উইকেটে ২৮২ রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

শ্রীলঙ্কা বোর্ড প্রেসিডেন্ট একাদশ: ২৮২/৮ (৫০ ওভার)

বাংলাদেশ: ২৮৫/৫ (৪৮.১ ওভার)

ফলাফল: বাংলাদেশ জয়ী

আস/এসআইসু

Facebook Comments