রায়পুর থানার পু‌লিশ সদস্য‌কে সন্ত্রাসী‌দের মারধর, আহত ৩ গ্রেফতার ৪

 

‌নিজস্ব প্রতিনিধিঃ  লক্ষ্মীপু‌রের রায়পুর থানার সি‌নিয়র এসআই মা‌নিক চন্দ্র বড়ুয়া‌ ও তার সা‌থে ডিউ‌টিরত পু‌লিশ সদস্য ম‌ফিজ উ‌দ্দিন (SAF কং ৮৯২) এবং ম‌নিরুল ইসলাম (SAF কং ৬৯৯) কে বেধরক মারধর ক‌রে‌ছে চার সন্ত্রাসী। পু‌লিশ সূ‌ত্রে জানাযায়, আজ ৩১ আগষ্ট শ‌নিবার সন্ধ্যা আনুমা‌নিক সাতটার দি‌কে মোবাইল ফো‌নের ত‌থ্যের ভি‌ত্তি‌ত্বে এসআই মা‌নিক দু‌ই পুলিশ সদস্য‌কে নি‌য়ে রায়পুর পৌর ৯নং ওয়ার্ডস্থ সা‌বেক কাউ‌ন্সিল‌র গোলাম হায়দা‌রের বা‌ড়ির সম্মুখস্থ ‌কৃত এক‌টি ছোট্ট ঘ‌রে গি‌য়ে সেঘ‌রে চারজন‌কে লুডু খেলা অবস্থায় দেখ‌তে পায়। পু‌লিশ তা‌দের‌ সা‌থে কথা বল‌লে তারা পু‌লি‌শের প্র‌তি উ‌ত্তে‌জিত হ‌য়ে প‌ড়ে তর্ক‌বিতর্ক শুরু ক‌রে। এক পর্যায় পু‌লিশ ওই চার ব্য‌ক্তি‌কে তা‌দের সা‌থে থানায় যাওয়ার কথা বল‌লে কাউ‌ন্সিলর গোলাম হায়দ‌রের ছে‌লে শান্ত উ‌ত্তে‌জিত হ‌য়ে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ ক‌রে এসআই মা‌নি‌কের উপর আক্রমন চালায়। সান্ত্রাসী শান্ত বয়বৃদ্ধ এসআই মা‌নিক‌কে শুই‌য়ে ফে‌লে তার বু‌কের উপর উ‌ঠে এলােপাতা‌ড়ি ‌কিলঘু‌ষি মার‌তে থা‌কে। তখন শান্তর অন্যান্য সংগীরা অন্য দুই পু‌লিশ সদ‌স্যের উপরও হামলা চালায়। ঘটনার বিবর‌ণে জানাযায়, এসময় বয়বৃদ্ধ এসআই মা‌নিকের পু‌লি‌শের পোষাক ছিঁ‌ড়ে ফে‌লে এবং এসআই মা‌নিকে মে‌রে ফেল‌তে উদ্বত হয়। অ‌ফিসা‌রের সহায়তায় অপর দুই সদস্য এ‌গি‌য়ে আস‌লে সন্ত্রাসীরা তা‌দেরও লা‌ঞ্চিত ক‌রে। সন্ত্রাসীরা উত্তম-মধ্যম দি‌য়ে তা‌দের পু‌লিশী পোষাক ও ব্যাজ ছি‌ঁড়ে ফে‌লে। প‌রে স্থানীয় ব্য‌ক্তিব‌র্গের সাহায়তায় পু‌লিশ উদ্ধার হ‌লে ওই চার সন্ত্রাসী‌কে পু‌লিশ আটক ক‌রে থানায় নি‌য়ে আ‌সে। থানায় এসে এসআই মা‌নিক হাউমাউ ক‌রে কাঁদ‌তে শুরু ক‌রে। এসময় সকল থানা পু‌লিশ অ‌ফিসার ও পুলিশ সদস্যরা তীব্র‌ প্র‌তিবা‌দে ফে‌টে প‌ড়ে। তখন নানান কা‌জে আসা থানার অবস্থানরত বি‌ভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকজনও তীব্র ক্ষোভ, নিন্দা ও দুঃখ প্রকাশ ক‌রে।
আটককৃত সন্ত্রাসীরা হ‌লেন, (১) ৯নং ওয়া‌র্ডে সা‌বেক কাউ‌ন্সিলর গোলাম হায়দা‌রের ছে‌লে মোঃ তান‌ভীর হায়দার শান্ত (২৮), (২) নুরুল আ‌মি‌নের ছে‌লে মোঃ তু‌হিন (২৯), (৩) মৃত; আবু জাফ‌রের ছে‌লে আব্দুল্লাহ আল মামুন (২৭) ও নূর ইসলা‌মের ছে‌লে মোঃ সাহাবু‌দ্দিন (২৯)। তারা সবাই পৌর ৯নং ওয়া‌র্ডের অ‌ধিবাসী।
উ‌ল্লেখ্য, রায়পু‌রে পু‌লি‌শের উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা এবারই প্রথম। স‌চেতন ব্য‌ক্তি‌দের মন্তব্য, এ ঘটনার ক‌ঠিন বিচার না হ‌লে পু‌লি‌শের প্র‌তি জনগ‌ণের আস্থা হা‌রি‌য়ে যা‌বে এবং পু‌লি‌শের প্র‌তি সন্ত্রাসী‌দের ভী‌তিও দূর হ‌য়ে যা‌বে। যারফ‌লে রায়পু‌রের আইনশৃঙ্খলা প‌রি‌স্থি‌তি নাজুক হ‌য়ে পড়‌বে।
এ‌দি‌কে বেশ কিছু মহল থে‌কে অ‌ভি‌যোগ উ‌ঠে‌ছে যে, প্রচুর প‌রিমাণ অ‌র্থের বি‌নিম‌য়ে আটককৃত আসামী‌দের ছাড়‌‌িয়ে নেওয়ার জন্য জোর তদবীর চা‌লছে। বিষয়‌টির কার‌নে মারাত্মকভা‌বে পু‌লি‌শের ভাবমূর্তী ক্ষুন্ন হ‌বে ব‌লে অ‌নে‌কেই তা‌দের মতামত প্রকা‌শে ব‌লেন।

Facebook Comments