রায়পুরে দিনে হুমকি, রাতে হাতুড়ি ও ইট দিয়ে পিটিয়ে হত্যা

 

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরের রায়পুর মসজিদের টাকা উত্তোলন নিয়ে দিনে হুমকির পর রাতে হাতুড়ি ও ইট দিয়ে পিটিয়ে সৈয়দ আহম্মদ (৩০) নামের এক যুবককে খুন করা অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘঠেছে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে পৌর শহরের শিবপুর গ্রামের আমির উদ্দিন ব্যাপারী বাড়ীর সামনে। রাতেই পুলিশ তাঁর লাশ উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে। নিহত সৈয়দ একই এলাকার মৃত শামছুল হকের ছেলে।

এঘটনায় নিহতের মা রিনা বেগম বাদী হয়ে বুধবার সকালে রায়পুর থানায় আব্দুল মালেক, তাঁর ছেলে জাহেদ, খালেক ও একই এলাকার মো. বাহারকে আসামী করে হত্যা মামলা করেন। এঘটনায় পুলিশ আব্দুল মালেককে আটক করে।

নিহতের মা রিনা বেগম ও ছোট ভাই সবুজসহ এলাকাবাসী জানায়, বাড়ীর সামনে নতুন করে একটি মসজিদ নির্মানে কাজ চলছে। মসজিদ নির্মানের জন্য এলাকাবাসী সৈয়দকে মসজিদের সামনে টাকা উত্তোলনের দায়িত্ব দেয়। এতে সৈয়দ টাকা উত্তোলন করে মসজিদ ফান্ডে জমা দিয়ে আসছিলেন। কয়েক দিন ধরে সৈয়দের টাকা উত্তোলন না করতে নিষেধ করে আসছে একই এলাকার আব্দুল মালেকের ছেলে জাহেদ ও খালেক। কিন্তু সৈয়দ টাকা উত্তোলন বন্ধ না করায় মঙ্গলবার সকালে এর জের ধরে জাহেদ ও খালেক সাথে ঝগড়া হয়। একপর্যায় সৈয়দকে তাঁদের কথা না শুনলে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়। ওই দিন রাতে স্থানীয় বাজার থেকে বাড়ী যাওয়ার পথে মসজিদের সামনে দুর্বৃত্তরা সৈয়দকে পথরোধ করে হাতুড়ি ও ইট দিয়ে পিটিয়ে মাথায় গুরুতর জখম করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় আহত সৈয়দকে উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে নেওয়া পথে সে মারা যায়। আমরা এ হত্যার সাথে জড়িত ঘাতকদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিচারের দাবি জানাই।

রায়পুর থানার (ওসি) মোহাম্মদ তোতা মিয়া বলেন, নিহতের মা রিনা বেগম এঘটনায় ৪ জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা করেছেন। এক আসামীকে গ্রেফতার করা হয়। অন্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে এবং মামলাটি খুবই গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে।

Facebook Comments