রাজনৈতিক নেতাদের এবার অন্যরকম ঈদ

আলোকিত সকাল ডেস্ক

দেশের প্রধান দুই রাজনৈতিক দলের নেতারা এবার ঈদে তাদের দলীয় প্রধানদের সান্নিধ্য পাচ্ছেন না। ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১২ দিনের ত্রিদেশীয় সফরে বর্তমানে ফিনল্যান্ডে অবস্থান করছেন। সেখানে তিনি ঈদুল ফিতর উদযাপন করবেন। অপরদিকে, বিএনপি চেয়ারপারসন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া দুর্নীতি মামলায় প্রায় দেড় বছর ধরে কারাবন্দি। বর্তমানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছে।

এছাড়া, জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ গুরুতর অসুস্থ। বার্ধক্যের কারণে হুইল চেয়ার ছাড়া কোথাও যেতে পারেন না। এবার তিনি ঈদুল ফিতরের নামাজও আদায় করতে পারবেন না বলে দৈনিক জাগরণকে জানিয়েছেন জাতীয় পার্টির প্রচার বিভাগের সদস্য জাহিদ বিপ্লব।

ঈদের নামাজের পর সাধারণত দলীয় প্রধানদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন নেতাকর্মীরা। এবার নেতারা যে যার মতো স্বাধীনভাবে ঈদ উদযাপন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। বিএনপি নেতাদের মধ্যে আগের মতো ঈদ কেন্দ্রিক কোনো পরিকল্পিত কর্মসূচি নেই।

আওয়ামী লীগ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবার দেশে ঈদ না করায় তার সরকারি বাসভবন গণভবনে কোনো গণসংবর্ধনাও থাকছে না। গণভবনের পরিবর্তে এবার আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠিত হবে দলের প্রধান কার্যালয় ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সিনিয়র নেতাদের নিয়ে সেখানে উপস্থিত থাকবেন। সোমবার (৩ জুন) বিকালে আওয়ামী লীগের উপদফতর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া দৈনিক জাগরণকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

দলের বেশির ভাগ নেতা ঈদ উদযাপন করবেন নিজ নিজ নির্বাচনি এলাকায়। জানা গেছে, আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সংসদ উপনেতা সাজেদা চৌধুরী শারীরিকভাবে অসুস্থ থাকায় এবার নিজ এলাকায় যেতে পারবেন না। তাকে ঢাকাতেই ঈদ করতে হচ্ছে। প্রতিবারের মতো এবারও নিজ এলাকার ঈদ করবেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য আমির হোসেন আমু। উপদেষ্টা পরিষদের আরেক সদস্য তোফায়েল আহমেদ ঈদ করবেন ঢাকায়।

সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম এবার ঈদ করবেন নিজ এলাকা সিরাজগঞ্জের কাজীপুরে। আরেক সদস্য কৃষিমন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক ঢাকায় জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে নামাজ আদায় করবেন। এরপর বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। লে. কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খান ঈদ করবেন ঢাকায়। ক্যান্টনমেন্ট মসজিদে নামাজ আদায় করে বঙ্গভবনে যাবেন তিনি। সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফরুল্ল্যাহ ঈদ করবেন তার নির্বাচনি এলাকা ফরিদপুরে।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ রোজার মধ্যে বেশ কয়েকবার নিজ এলাকা কুষ্টিয়া ঘুরে এসেছেন। জাহাঙ্গীর কবির নানক ঈদ করবেন রাজধানীর মোহাম্মদপুরে। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শিক্ষমন্ত্রী দীপু মণি চাঁদপুরে, আরেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান ঈদ করবেন ফরিদপুরে।

সাংগঠনিক সম্পাদকদের মধ্যে আহমেদ হোসেন, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম ও নৌ-প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এবার ঈদে ঢাকায় থাকছেন। তবে তারা তিনজনই ঈদের আগে নিজ নিজ এলাকার মানুষের সঙ্গে দেখা করে এসেছেন। ইফতার পার্টিসহ অংশ নিয়েছেন বেশ কিছু অনুষ্ঠানেও। ঈদের পরপরই ফের এলাকায় গিয়ে বেশ কিছু অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন বলে জানান তারা। সাংগঠনিক সম্পাদক শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল ঈদ করবেন চট্টগ্রামে।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)

গত বছরের মতো বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে এবারও ঈদ করতে হচ্ছে কারাগারে। ঈদের আগে তার কারামুক্তি হচ্ছে না নিশ্চিত হয়ে এরইমধ্যে দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের অনেকেই নিজ এলাকায় ঈদ করতে গেছেন। যারা ঢাকায় ঈদ করবেন তারাও ঈদের আগেই নিজ এলাকা ঘুরে এসেছেন।

বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুদু দৈনিক জাগরণকে জানান, দীর্ঘদিন পর এবার তিনি নাটোরে ঈদ উদযাপন করছেন। তিনি বলেন, ম্যাডাম বাইরে না থাকায় ঢাকায় ঈদ উদযাপনের আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছি। তাই দীর্ঘদিন পর স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে নিজের এলাকায় ঈদ করতে এসেছি।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের ঈদ করার কথা রয়েছে ঢাকায়। দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন ঢাকায়, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ নোয়াখালীতে, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার ঢাকায়, মির্জা আব্বাস ঢাকায়, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ঢাকা ও কেরানীগঞ্জ, লে. জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান ঢাকায়, ড. আবদুল মঈন খান নরসিংদী, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী চট্টগ্রামে ঈদ করবেন বলে জানিয়েছেন।

ভাইস চেয়ারম্যান বিচারপতি টি এইচ খান ঢাকায়, এম মোর্শেদ খান চট্টগ্রামে, শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন ঢাকায়, আব্দুল্লাহ আল নোমান চট্টগ্রামে, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু সিরাজগঞ্জে, মেজর (অব) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ ঢাকায়, অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন ঢাকায়, এয়ার ভাইস মার্শাল (অব) আলতাফ হোসেন চৌধুরী পটুয়াখালীতে, বেগম সেলিমা রহমান ঢাকায়, আব্দুল আউয়াল মিন্টু ঢাকায়, ডা এজেডএম জাহিদ হোসেন ঢাকায়, শামসুজ্জামান দুদু ঢাকা ও চুয়াডাঙ্গায় এবং শওকত মাহমুদ কুমিল্লায় ঈদ করবেন বলে জানা গেছে।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী দলের নয়াপল্টন কার্যালয়ে ঈদ করবেন। খালেদা জিয়া কারান্তরীণ হওয়ার পর থেকে তিনি সেখানেই অবস্থান করছেন। খালেদা জিয়া ছাড়াও কারাগারে ঈদ করবেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম পিন্টু, যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী সোহেল, লায়ন আসলাম চৌধুরী, নির্বাহী কমিটির সদস্য লুৎফুজ্জামান বাবর ও কেন্দ্রীয় যুবদল সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাহ উদ্দিন টুকু।

জাতীয় পার্টি ও অন্যান্য দল

ঈদকে ঘিরে বিশেষ করে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানকে ঘিরে নেতাদের আগ্রহ তেমন নেই বললেই চলে। তবে দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জিএম কাদের উত্তরায় ঈদ নামাজ শেষে বেলা ১১টায় বনানীতে এরশাদের সঙ্গে যোগ দেবেন। সেখানে এরশাদ নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন বলে দৈনিক জাগরণকে জানান জাতীয় পার্টির প্রচার বিভাগের সদস্য জাহিদ বিপ্লব। আর প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ ধানমণ্ডিতে নামাজ পড়ে এরশাদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন বলে জানিয়েছেন।

ইসলামী আন্দোলনের আমির চরমোনাই পীর সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করীম নিজ গ্রাম বরিশালের চরমোনাই মাদ্রাসা ময়দানে ঈদের জামাতে ইমামতি করবেন। হাফেজ্জী হুজুর প্রতিষ্ঠিত দল বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমির মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ রাজধানীর কারওয়ান বাজারে আম্বর শাহ মসজিদে ঈদের নামাজের ইমামতি করবেন। জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের সিনিয়র নায়েবে আমির ও হেফাজতে ইসলামের ঢাকা মহানগর আহ্বায়ক মাওলানা নূর হোসাঈন কাসেমী রাজধানীর বারিধারার জামিয়া আরাবিয়া মাদ্রসায় ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করবেন। ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আব্দুল লতিফ নেজামী রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর একটি মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করবেন। খেলাফত মজলিসের আমির অধ্যক্ষ মাওলানা মুহাম্মদ ইসাহাক তার নিজ গ্রাম পাবনার মধুপুরে ঈদের নামাজে ইমামতি করবেন।

অরাজনৈতিক সংগঠন হলেও হেফাজতে ইসলামের সঙ্গে জড়িত অধিকাংশই বিভিন্ন ইসলামী দলের কোনো না কোনো পর্যায়ের নেতাকর্মী। সংগঠনটির আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী চট্টগ্রামের হাটহাজারি মাদ্রাসায় ঈদের নামাজ আদায় করবেন।

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box