রমজানের প্রথম জুমায় মুসল্লিদের ঢল

আলোকিত সকাল ডেস্ক

পবিত্র মাহে রমজানের প্রথম জুমা ছিল আজ শুক্রবার (১০ মে)। আর প্রথম জুমা হওয়ায় জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমসহ মসজিদে মসজিদে ছিল নানা বয়সী মুসল্লিদের ঢল।

রমজানের প্রথম জুমায় মুসল্লিদের উপস্থিতিতে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ ছিল কানায় কানায় পূর্ণ। মসজিদের ভেতরে জায়গা না পেয়ে মুসল্লিদের রাস্তায় দাঁড়িয়ে নামাজ পড়তে দেখা যায়।

প্রচণ্ড খরতাপ উপেক্ষা করে বায়তুল মোকাররমের বিভিন্ন গেট দিয়ে মুসল্লিরা নামাজের জন্য প্রবেশ করেন। দুপুর ১টা নাগাদ মসজিদের ভেতরে তিল ধারনের জায়গা না থাকায় ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা উত্তর গেটের বাইরের সিঁড়ি ও রাস্তায় নামাজ আদায় করেন।

বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ ছাড়াও রাজধানীর প্রতিটি মসজিদে ছিল মুসল্লিদের উপচেপড়া ভিড়। মসজিদগুলোতে ছিল নানা বয়সী মুসল্লিদের ব্যাপক উপস্থিতি। অধিকাংশ মসজিদে জায়গা ভরে রাস্তার অনেক দূর পর্যন্ত মুসল্লিদের নামাজের কাতার লক্ষ্য করা গেছে।

মহাখালী মসজিদে গাউছুল আজম, হাইকোর্ট জামে মসজিদ, লালবাগ শাহী মসজিদ, চকবাজার শাহী মসজিদসহ রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ মসজিদগুলোতে মুসল্লিদের ব্যাপক সমাগম ছিল প্রথম জুমায়।

মসজিদে গাউছুল আজমের অভ্যন্তরে মুসল্লিদের ঠাঁই হয়নি। মসজিদে বাইরে উন্মুক্তস্থানে মুসল্লিগণ অবস্থান নিয়ে জুমার নামাজ আদায় করে স্বস্তি পেয়েছেন। গাউছুল আজমের মসজিদে নারী মুসল্লিদের কর্নারেও ভিড় ছিল লক্ষ্য করার মতো।

নামাজের আগে মসজিদে মসজিদে হয়েছে বিশেষ খুতবা। নামাজ শেষে মুসলিম উম্মাহর শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ দোয়া মোনাজাত করা হয়।

মুসল্লিদের নিরাপত্তা রক্ষার্থে রাজধানীর বায়তুল মোকাররম মসজিদের সামনে ও আশপাশের এলাকায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিপুলসংখ্যক সদস্য মোতায়েন করা হয়।

পবিত্র রমজান মাসেই নাজিল হয় পবিত্র কোরআন শরীফ। হাদিসে আছে, এ মাসে যে কোনও ইবাদতে ৭০ গুণ বেশি সওয়াব পাওয়া যায়। আর তাই মুসলমানরা এই এক মাস সিয়াম সাধনার পাশাপাশি বিশেষ ইবাদতের মাধ্যমে আল্লাহর নৈকট্য ও করুণা অর্জনে সচেষ্ট হন। এ মাসে অশেষ রহমত, নৈকট্য, শান্তি এবং তাকওয়া অর্জনের অপূর্ব সুযোগ এনে দেয়। এ মাস আত্মসংযমও আত্মশুদ্ধির মাধ্যমে নিজেকে পরিশুদ্ধ করার সুযোগ সৃষ্টি করে দেয়।

আস/এসআইসু

Facebook Comments