যে ম্যাচগুলো মিস করবেন ‘নিষিদ্ধ’ মেসি

  ৩ আগস্ট ২০১৯, শনিবার

কোপা আমেরিকায় চিলির বিপক্ষে তৃতীয় স্থান নির্ধারনী ম্যাচে সরাসরি লাল কার্ড দেখায় এর আগে এক ম্যাচ নিষিদ্ধ হন লিওনেল মেসি। তবে দক্ষিণ আমেরিকান ফুটবল ফেডারেশন (কনমেবল) ছাড় দেয়নি মেসিকে। কনমেবল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক মন্তব্য করায় আর্জেন্টিাইন তারকাকে ৩ মাসের জন্য নিষিদ্ধ করেছে সংস্থাটি। সঙ্গে ৫০ হাজার ডলার জরিমানা করা হয়েছে মেসিকে। শাস্তির বিরুদ্ধে আপিল করতে ৭ দিন সময় পাবেন মেসি। নিষিদ্ধ হওয়ায় ২০২২ বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের একটি ম্যাচসহ মোট ৪টি ম্যাচ মিস করবেন পাঁচবারের বর্ষসেরা এই ফুটবলার। মার্চে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে আর্জেন্টিনার প্রথম ম্যাচ খেলতে পারবেন না মেসি। এরপর সেপ্টেম্বর ও অক্টোবরে চিলি, জার্মানি ও মেক্সিকোর বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচ মিস করবেন বার্সেলোনা সুপারস্টার।

কোপা আমেরিকায় এবার তৃতীয় হয়ে শেষ করেছে আর্জেন্টিনা। তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে চিলির খেলোয়াড় গ্যারি মেডেলের সঙ্গে বেঁধে যায় মেসির। রেফারি দু’জনকেই সরাসরি লাল কার্ড দেখিয়ে মাঠছাড়া করেন। পরে কনমেবলরের বিরুদ্ধে টুর্নামেন্টের স্বাগতিক ব্রাজিলকে বাড়তি সুবিধা দেয়ার অভিযোগ তুলেন মেসি। তিনি বলেন, ‘ব্রাজিলকে জেতানোর জন্যই আগে থেকে সবকিছু ঠিকঠাক করে রেখেছে কনমেবল।’ এছাড়া আর্জেন্টিনার কোচ লিওনেল স্কালোনিও দাবি করেন, ফাইনালে খেলার যোগ্য দল ছিল আর্জেন্টিনা।
বিস্ফোরক মন্তব্যের পরই শোনা গিয়েছিল, আন্তর্জাতিক ফুটবলে ২ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হতে পারেন মেসি। তবে নিজের ভুল স্বীকার করে নেয়ায় প্রাথমিকভাবে মেসিকে এক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা আর ১৫০০ ডলার জরিমানা করা  হয়

Facebook Comments