যে কারণে কারাগারে যাচ্ছেন মিন্নির আইনজীবী

আলোকিত সকাল ডেস্ক

বরগুনায় আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান সাক্ষী থেকে আসামি বনে যাওয়া রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির সঙ্গে জেলহাজতে দেখা করবেন তার আইনজীবী। আইনি সহায়তার ক্ষেত্রে পরামর্শের জন্য বুধবার দুপুরে বরগুনা জেলা কারাগারে মিন্নির সঙ্গে দেখা করবেন তার আইনজীবী অ্যাডভোকেট মো. মাহবুবুল বারী আসলাম।

তবে একটি সূত্র জানিয়েছে, জেল হাজতে মিন্নির সঙ্গে দেখা করে রিফাত হত্যাকাণ্ডে আদালতে দেয়া মিন্নির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রত্যাহারের আবেদনের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবেন তিনি।

এ বিষয়ে মিন্নির আইনজীবী বরগুনা জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মাহবুবুল বারী আসলাম বলেন, দুপুর ১টার দিকে মিন্নির সঙ্গে দেখা করতে বরগুনা জেলা কারাগারে যাব। মিন্নিকে আইনি সহায়তা দিতে ও মিন্নির ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে তার সঙ্গে আমি কথা বলব। মিন্নির সঙ্গে কথা বলে পরবর্তী আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে বলেও জানান অ্যাডভোটেক মো. মাহবুবুল বারী আসলাম।

এর আগে ১৯ জুলাই বিকেল ৩টার দিকে বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মোহাম্মাদ সিরাজুল ইসলাম গাজীর কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন মিন্নি।

যদিও পরবর্তীতে দালতে নিজেকে নির্দোষ জানিয়ে ষড়যন্ত্রের শিকার বলে দাবি করেছিলেন মিন্নি। তার দাবি, আসামিরা তাকে বিভিন্নসময়ে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখিয়েছে। তিনি স্বামী হত্যার বিচার চান।

উল্লেখ্য, গত ২৬ জুন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে রিফাত শরীফকে। পরে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বিকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

এ ঘটনায় রিফাতের বাবা দুলাল শরীফ বাদী হয়ে ১২ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা সাতজনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেন। যার ১ নম্বর স্বাক্ষী ছিলেন মিন্নি।

রিফাত হত্যা মামলায় এ পর্যন্ত ১৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ২ জুলাই ভোররাতে মামলার প্রধান আসামি নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন।

আস/এসআইসু

Facebook Comments