যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে মৃত্যু এক লাখ ৭০ হাজার ছাড়াল

 

বিশ্বময় ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস মহামারীতে যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যুর সংখ্যা এক লাখ ৭০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে।

জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের কোভিড-১৯ ড্যাশবোর্ডের তথ্য অনুযায়ী, সোমবার বাংলাদেশের স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ যুক্তরাষ্ট্রে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ৭০ হাজার ৫২ জনে।

রোববার যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ৪৮৩ জনের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে মৃতের সংখ্যা দুঃখজনক এই মাইলফলকটি পার হয় বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। ফ্লোরিডা, টেক্সাস ও লুইজিয়ানায় সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

ফ্লু-র ঋতু চলে আসায় যুক্তরাষ্ট্রে কোভিড-১৯ মহামারী পরিস্থিতি আরও জটিল হয়ে উঠতে পারে বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন দেশটির স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা।

৫৪ লাখেরও বেশি শনাক্ত রোগী নিয়ে নতুন করোনাভাইরাস সংক্রমণে বিশ্বের শীর্ষে আছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে পরীক্ষার সংখ্যা এখনও স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের সুপারিশকৃত স্তরে উন্নীত করতে না পারায় দেশটিতে প্রকৃত আক্রান্তের সংখ্যা আরও অনেক বেশি বলে ধারণা রয়েছে।

অধিকাংশ রাজ্যেই নতুন আক্রান্তের সংখ্যা কমতে শুরু করলেও হাওয়াই, সাউথ ডাকোটা ও ইলিনয়ে বাড়ছে।

শরৎ ও শীতকালে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ফ্লু-র প্রকোপ দেখা দেয়। শরৎ প্রায় চলে আসায় এ সময়টিতে করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যার পুনরূত্থান ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন দেশটির জনস্বাস্থ্য কর্মকর্তারা।

সেন্টার ফর ডিজিজেস কন্ট্রোলের (সিডিসি) পরিচালক রবার্ট রেডফিল্ড ওয়েভ এমডি-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সতর্ক করে বলেছেন, যদি জনগণ স্বাস্থ্য বিষয়ক গাইডলাইন মেনে না চলে তাহলে যুক্তরাষ্ট্র সম্ভবত ‘সবচেয়ে খারাপ শরৎকাল’ কাটাবে।

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস আক্রান্তের মোট সংখ্যা ২ কোটি ১৬ লাখ ৭২ হাজার ১৮৬ জনে দাঁড়িয়েছে এবং এ পর্যন্ত ৭ লাখ ৭৫ হাজার ২৪৬ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের দেওয়া পরিসংখ্যানে দেখা গেছে। এর প্রায় এক-চতুর্থাংশ আক্রান্ত ও মৃত্যু নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ভাইরাসটির বৈশ্বিক উপকেন্দ্রে হিসেবেই রয়ে গেছে

Facebook Comments Box