ময়মনসিংহে গফরগাঁও নারীকে গলাকেটে হত্যার চেষ্টা

সারুয়ার হাসান (সজিব) স্টাফ রিপোর্টার

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে এক নারীকে গলাকেটে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শনিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার রাওনা ইউনিয়নের দীঘা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গফরগাঁও থানার ওসি আবদুল আহাদ খান।

আহত নিলুফা আক্তার (৩৫) ওই গ্রামের মৃত কাজলের স্ত্রী। গুরুতর আহত নিলুফাকে প্রথমে গফরগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে রাতেই তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিলুফা আক্তার দুই ছেলে-মেয়ে নিয়ে ওই গ্রামে বসবাস করে। শনিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে বাড়ির পাশে জঙ্গলের কাছে বাথরুমে যান তিনি। বাথরুম সেরে বের হওয়ার পর পেছন থেকে অজ্ঞাত পরিচয় এক নারী তাকে ঝাপটে ধরে এবং গলা কেটে হত্যার চেষ্টা করে। নিলুফার চিৎকারে বাড়ির লোকজন এগিয়ে আসলে ওই নারী পালিয়ে যায়। পরে বাড়ির লোকজন নিলুফা আক্তারকে উদ্ধার করে প্রথমে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।

নিলুফা আক্তারের মেয়ে প্রীমা আক্তার জানায়, মায়ের চিৎকার শুনে দৌঁড়ে টয়লেটের দিকে গিয়ে দেখি মায়ের সারা শরীরে রক্ত। মা বলেন অজ্ঞাত এক মহিলা তাকে গলাকেটে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছিল।

গফরগাঁও থানার ওসি মোহাম্মদ আবদুল আহাদ খান বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। কি কারণে বা কে নিলুফা ইয়াসমিনকে হত্যার চেষ্টা করেছিল বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments