মশার ওষুধ পরীক্ষায় ডিএনসিসির ‘কারিগরি কমিটি’ গঠন

আলোকিত সকাল ডেস্ক

মশা নিয়ন্ত্রণে কীটনাশক নির্বাচন, কার্যকারিতা পরীক্ষা, ক্রয় প্রক্রিয়ায় সহযোগিতা এবং কীটনাশকের কার্যকারিতা মনিটর করার জন্য ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে (ডিএনসিসি) ১০ সদস্য বিশিষ্ট একটি কারিগরি কমিটি গঠন করা হয়েছে। ডিএনসিসি মেয়র কমিটির সভাপতি এবং প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

আজ সোমবার ( ১৫ জুলাই) ডিএনসিসির নগর ভবনে ডিএনসিসি মেয়রের সভাপতিত্বে ‘মশক নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমে ব্যবহৃত অধিকতর কার্যকর কীটনাশক প্রবর্তন’ শীর্ষক এক সভায় এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

কমিটির সদস্যরা হলেন- সংক্রামক রোগ নিয়ন্ত্রণ (সিডিসি) এর পরিচালক/প্রতিনিধি; রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) এর পরিচালক/প্রতিনিধি; আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র (আইসিডিডিআর,বি) এর প্রতিনিধি; সিডিসির কীটতত্ত্ববিদ; উদ্ভিদ সংরক্ষণ শাখার প্রতিনিধি; জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের কীটতত্ত্ববিদ অধ্যাপক কবিরুল বাশার; বাংলাদেশ ক্রপ প্রটেকশন এসোসিয়েশন (বিসিপিএ) এর সভাপতি এ কে এম আজাদ ও কীটতত্ত্ববিদ ড. মঞ্জুর আহমেদ চৌধুরী।

সভায় মশক নিধন কার্যক্রম ও পূর্ণাঙ্গ মশা নিধনে কীটনাশকের (এডাল্টিসাইড) কার্যকারিতা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। আলোচনায় মশার উপর কীটনাশকের কার্যকারিতা এবং পরিবেশের উপর এর প্রভাবের উপর গুরুত্ব আরোপ করা হয়। সার্বিক বিষয় বিবেচনায় নিয়ে সভায় উপস্থিত বিশেষজ্ঞগণ পরবর্তী কীটনাশক ক্রয় করা পর্যন্ত বর্তমানে ব্যবহৃত কীটনাশকের ঘনত্ব বাড়িয়ে ব্যবহার করার পরামর্শ দেন। পাশাপাশি দীর্ঘমেয়াদি কীটনাশক হিসেবে অধিকতর কার্যকর কীটনাশক ও নতুন প্রযুক্তি সংযোজন করার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। তবে দীর্ঘমেয়াদি কীটনাশক ক্রয়ের আগ পর্যন্ত স্বল্পমেয়াদে অধিকতর কার্যকর কীটনাশক ক্রয়ের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। তা ছাড়া বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শের প্রেক্ষিতে তারা নতুন কীটনাশক সংযোজন করার পরামর্শ দেন।

উপস্থিত ছিলেন- ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবদুল হাই, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোমিনুর রহমান মামুন, সিডিসির পরিচালক অধ্যাপক সামিয়া তহমিনা, আইইডিসিআর এর অধ্যাপক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা, উদ্ভিদ সংরক্ষণ শাখার অতিরিক্ত উপ-পরিচালক মো. মোশারফ হোসেন, আইসিডিডিআরবির এসোসিয়েট সায়েন্টিস্ট ড. মো. শফিউল আলম, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের কীটতত্ত্ববিদ অধ্যাপক কবিরুল বাশার, প্রোগ্রাম ম্যানেজার ডা. এম এম আখতারুজ্জামান, লেখক সৈয়দ আবুল মকসুদ উপস্থিত ছিলেন।

আস/এসআইসু

Facebook Comments