ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে সাভারের সাধাপুর-আমিনবাজার সংযোগ সড়ক

অমিত সূএধর, সাভার-আশুলিয়া প্রতিনিধি

সাভার পৌরসভা গঠিত হয়েছে প্রায় ২০ বছর। অথচ সাভার পৌরসভার পাশ দিয়ে ঢাকা আরিচা মহাসড়কের পাশে এই সড়কটি অবস্থিত। প্রায় ২০ কিলোমিটার যার দৈর্ঘ্য। সাভার উলাইল বাস স্ট্যান্ড এর ভিতর দিয়ে সাধাপুর হয়ে এই রোডটি আমিনবাজারের সংযোগ সড়ক হিসেবে মিলিত হয়েছে।এই রোডের ২পাশে হয়েছে অসংখ্য গার্মেন্টস ফ্যাক্টরি।

এই রোড দিয়ে প্রতিদিন প্রায় ২৫ থেকে ৩০ হাজার লোক যাতায়াত করে। অথচ আজ অনেকদিন হয়ে গেল প্রায় দুই কিলোমিটারের উপরে রাস্তা চলাচলের অনুপযোগী হয়ে গেছে। একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তায় পানি জমে হাটু পর্যন্ত হয়ে যায়।পথচারীরা চলাচলের সময় বিভিন্ন ধরনের দুর্ঘটনা সম্মুখীন হয়। রাস্তায় মাঝখানে বড় বড় গতের জন্য পিকআপ এর স্ক্রিং ভেঙে পড়ে যায় এবং গাড়ি নষ্ট হয়ে যায় । মাঝে মাঝে ছোট পিকআপ গুলো উল্টে যায়। রিক্সা ও ভ্যান চলাচলের একেবারেই অনুপোগতি হয়ে গেছে।মাঝে মাঝেই রিক্সা-ভ্যান ঊল্টো জনগণ আহত হয়।অনেক আবার পঙ্গুত বরণ করে ।

কেও অসুস্থ হয়ে গেলে রাস্তা খারাপের জন্য দ্রুত সময়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়না।কিছুদিন আগে রাস্তসয় একরোগি মৃত্যু বরণ করেন। জনগণের কষ্ট মুখে বলার মত নয় সাদাপুর সাদুল্লাপুর মূলত কৃষি অঞ্চল। প্রতিদিন কৃষকরা তাদের কৃষি পণ্য বাজারজাতকরণের জন্য সাভারে নিয়ে আসে। এই রাস্তা খারাপ হওয়ার দরুন তাদের পরিবহন খরচ অনেক বেড়ে যায়। আসতে অনেক সময় লাগে। ভুক্তভোগি জনগণদের সাথে কথা বলে জানা যায় প্রতিবার ভোটের সময় চেয়ারম্যান-মেম্বার দেখতে পাই,নিবাচন হয়ে গেল আজ ২বছরের ঊপর। এখন পযন্ত এই রাস্তা ঠিক হলো না।তাদের কাছে গেলেই শুধু আশার বাণী দেয়।

এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট পৌরসভার পৌর মেয়র আলহাজ্ব আব্দুল গনি সাহেবের সাথে কথা জানা যায় যে, আসলে এই রাস্তাটি এলজিআরডি তত্ত্বাবধানে। আপনারা শুনে খুশি হবেন জনগণের কষ্ট লাঘবের জন্য অলরেডি এ রাস্তার টেন্ডার হয়ে গেছে। আগামী বর্ষা আসার আগেই আমরা এ রাস্তার কাজ ধরবো। পূর্ণাঙ্গ কাজ যদি করা সম্ভব না হয় মানুষের চলাচলের উপযোগী করে রাস্তাটি জনগণের কাছে উপহার দিব। শুকনো মৌসুমে পিচ ঢালাই দিয়ে পূর্ণাঙ্গভাবে দুই কিলোমিটার রাস্তা সংষ্কার সহ পুরো রোডের কাজ করে দেব।এতে করে জনগণের দুর্ভোগ দূর হয়ে যাবে আশাকরি।

আস/এসআইসু

Facebook Comments