বেহাল সড়কে দুর্ভোগ

আলোকিত সকাল ডেস্ক

সাভার পৌরসভার নিউ মার্কেট সংলগ্ন শাহীবাগ চাপাইন- দেওগা সড়কটি দীর্ঘদিন মেরামত বা সংস্কার না করার কারণে মানুষ ও যান চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। অধিকাংশ জায়গায় সৃষ্টি হয়েছে বড় বড় গর্ত। ড্রেনেজ অব্যবস্থাপনার কারণে হালকা বৃষ্টি হলে রাস্তায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। দীর্ঘ ৬-৭ বছর ধরে এ ভাঙা সড়ক দিয়েই এলাকার মানুষ চলাচল করছে। সড়কটি মেরামতের জন্য একাধিকবার পৌরসভা কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে বারবার সংস্কারের কথা বলেও সংস্কারের কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।

সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে, সড়কজুড়েই বড় বড় গর্ত হয়ে পানি জমে আছে। সর্বশেষ এক যুগ আগে সংস্কার করা এ সড়কটিতে ইট পাথরের কোনো অস্তিত্বই নেই। রাস্তার পাশের ড্রেন ভেঙে গেছে। একটু বৃষ্টি হলেই পানি জমে রাস্তাটি চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ে। ড্রেনের ময়লা পানি রাস্তায় উপচে উঠে একাকার হয়ে যায়।

এ অবস্থায় ময়লা পানি ডিঙ্গিয়েই অনেক কষ্টে পথচারী ও এলাকাবাসীকে চলাচল করতে হচ্ছে। সংস্কার না করার ফলে অধিকাংশ সময় অটোরিকশা দুর্ঘটনার কবলে পড়ছে। বিশেষ করে নারী ও শিশুরা মারাত্মকভাবে আহত হয়। এ ব্যস্ত সড়কটিকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে অনেক মাদ্রাসা, স্কুল, কলেজ, বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠান। প্রতিদিন শতশত শিক্ষার্থীকে কাদা ও জলাবদ্ধতা পেরিয়ে বিদ্যালয়ে যাতায়াত করতে হয়। এমনিভাবে শাহীবাগ, ডগরমোড়ার বাসিন্দাদেরও নিয়মিত এ রাস্তায় যাতায়াত করতে হয়।

ডগরমোড়ার বাসিন্দা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী রেজওয়ান কাজল বলেন, সারা বাংলাদেশের উন্নয়নের ছোঁয়া লাগলেও এ রাস্তাটি বরাবরের মতোই অবহেলিত ও বঞ্চিত রয়েছে এবং এটি সংস্কারের ব্যাপারে অজানা কারণে পৌর কর্তৃপক্ষ উদাসীন। এ সড়কটি দিয়ে প্রতিদিন শতশত মানুষ যাতায়াত করে পৌরসভার কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন জানায়, দ্রুত এ সড়কটি যেন সংস্কার করা হয়।

বিভিন্ন স্কুলে শিক্ষকরা ও শিক্ষার্থীরা বলেন, বৃষ্টির দিনে স্কুলে যেতে অনেক কষ্ট হয় তারপরও ময়লা পানি পাড়িয়ে স্কুলে যেতে হয়। পৌরসভার মেয়র আমাদের স্কুলে বার্ষিক অনুষ্ঠানে এসে সংস্কারের কথা বলেও সংস্কার করা হয়নি। দ্রুত সংস্কারে দাবি জানায়।

কলেজপড়ুয়া শিক্ষার্থীর বলেন, এ রাস্তাটি শাহবাগ-দেওগাঁসহ ৩-৪ গ্রামের মানুষের যাতায়াতের প্রধান পথ হওয়ায় দুর্ভোগের শেষ নেই।

সাভার পৌরসভার মেয়র বলেন, দুর্ভোগের দিন শেষ ডিসেম্বরের মধ্যে এ রাস্তার সংস্কার কাছ শুরু হবে। ইতোমধ্যে ডগরমোড়া রাস্তার কাছ শুরু হয়েছে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments