বিয়ের ১১ বছর পর কৃষকের ঘরে এক সঙ্গে চার সন্তান

আলোকিত সকাল ডেস্ক

নাটোরের সিংড়া উপজেলার শেরকোল ইউনিয়নের ভাগনারকান্দি গ্রামের কৃষক মিলন বিয়ে করেন ১১ বছর আগে। বিয়ের এত দিনে কোনো সন্তান জন্ম হয়নি স্ত্রী শাহিদা বেগমের (৩৫) গর্ভে। এবার প্রথমবারের মতো তাদের সংসার আলো করেছে নতুন অতিথি।

গতকাল শনিবার দুপুর ২টার দিকে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে শাহিদা জন্ম দেন একে একে চার সন্তান। তাদের মধ্যে একজন ছেলে ও বাকি তিনজন মেয়ে। স্বাভাবিক প্রসবের মাধ্যমেই মিলন-শাহিদার ঘর উজ্জ্বল করে এই চার সন্তান।

নাটোর সদর হাসপাতালের আরএমও মাহবুবুর রহমান জানান, গতকাল সকালে শাহিদার প্রসব ব্যথা উঠলে তাকে প্রথমে সিংড়া হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে সেখান থেকে নাটোর সদর হাসপাতালে আনা হয় তাকে। দুপুর ২টার দিকে হাসাপাতালের চিকিৎসক ফজলুল কাদিরের তত্ত্বাবধানে শাহিদা একে একে চার সন্তানের জন্ম দেন।

মাহবুবুর রহমান আরও জানান, জন্ম নেওয়া চার শিশুর মধ্যে দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজন। তাই চার সন্তান ও মা শাহিদাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

শাহিদা আক্তারের স্বামী মিলন জানান, প্রায় ১১ বছর আগে তাদের বিয়ে হলেও দীর্ঘদিন তার স্ত্রীর কোনো সন্তান হয়নি। বিয়ে দীর্ঘদিন পর প্রথম তাদের ঘড়ে এক সঙ্গে চার সন্তান এসেছে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments