প্রোটিয়াদের সামনে উজ্জীবিত ব্যাঘ্রবাহিনী

আলোকিত সকাল ডেস্ক

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ শুরু হচ্ছে আগামীকাল। লন্ডনের কেনিংটন ওভালে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে তিনটায় দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হবে টাইগাররা। বাংলাদেশের প্রথম হলেও প্রোটিয়াদের জন্য এটি টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় ম্যাচ। উদ্বোধনী ম্যাচে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১০৪ রানের বিশাল ব্যবধানে হেরেছে ফাফ ডু প্লেসিসের দল। এই ম্যাচে তাই নিজেদের ফিরে পেতে উদগ্রীব থাকবে তারা। অন্যদিকে বাংলাদেশ চাইবে লম্বা টুর্নামেন্টের জন্য একটি দারুণ সূচনা।

এদিকে ম্যাচের আগে বাংলাদেশের জন্য দুশ্চিন্তা হয়ে আছে তামিম ইকবালের আঙুলের ইনজুরি। এক্স-রে প্রতিবেদনে কোনো ফ্র্যাকচার না পাওয়া গেলেও তামিম পুরোপুরি ফিট কিনা তা জানতে অপেক্ষা করতেই হচ্ছে। ইংল্যান্ডে খেলা ৭ ওয়ানডেতে তামিমের গড় ৫০ দশমিক ৭১। দুই বছর আগের চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে এই ইংল্যান্ডেই ছিল তার ১২৮ ও ৯৫ রানের দুটি ইনিংস। এ পরিসংখ্যানই বলে দিচ্ছে, ইংলিশ কন্ডিশনে তামিমকে কতটা দরকার বাংলাদেশের।

বাংলাদেশ দলে ছোটখাটো ইনজুরি সমস্যা আছে আরও। অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা হ্যামস্ট্রিংয়ের ইনজুরি থেকে পুরোপুরি সেরে ওঠেননি। পেস আক্রমণের কান্ডারি মুস্তাফিজও ভুগছেন গোড়ালির ইনজুরিতে। কাঁধের চোট রয়েছে অলরাউন্ডার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের। ব্যাকপেইনে ভুগছেন সাকিব, তবে তিনি খেলবেন এটা নিশ্চিত।

এদিকে বিশ্বকাপের প্রস্তুতি পর্বে পাকিস্তানের বিপক্ষে টাইগারদের ম্যাচটি বৃষ্টিতে ভেসে গেলেও টুর্নামেন্টের ফেবারিট ভারতের বিপক্ষে প্রস্তুতি সারার সুযোগ পেয়েছে তারা। ভারতের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনআপকে ভালোই চোখ-রাঙানি দিয়েছে বাংলাদেশের ফাস্ট বোলিং ইউনিট। তবে স্পিনাররা মার খেয়েছেন বেদম। তাই টাইগার টিম ম্যানেজমেন্ট আলাদা করে ভাবতে পারেন কতজন পেসার খেলানো যেতে পারে তা নিয়ে। সেই সাথে সৌম্য, লিটন ও মুশফিকের সাথে তামিম যুক্ত হলে বাংলাদেশের ব্যাটিং আক্রমণটা যেকোনো দলের জন্য সমীহ জাগানিয়া হতে বাধ্য।

অন্যদিকে দক্ষিণ আফ্রিকা দলে দেখা যেতে পারে বিধ্বংসী পেসার ডেল স্টেইন। ফিরতে পারেন ক্রিস মরিসও। সেই সাথে কাগিসো রাবাদা, লুঙ্গি এনগিদি ও ইমরান তাহির তো রয়েছেনই। সব মিলিয়ে প্রোটিয়া বোলিং লাইনআপের শক্তিমত্তার কমতি নেই। অন্যদিকে বাংলাদেশি বোলারদের ঘাম ঝরাতে পারেন হাশিম আমলা ও কুইন্টন ডি কক।

আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে, আগামীকাল মেঘলা থাকতে পারে লন্ডনের আকাশ। তাই কন্ডিশন নিজেদের পক্ষে নিতে টসজয়ী দল ফিল্ডিং নেওয়ার কথাই ভাবতে পারে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box