পুলিশ কনস্টেবল পারভেজের পাশে দাঁড়াই- ইমাউল হক পিপিএম

স্টাফ রিপোর্টার

পুলিশ কনস্টেবলকে কাভার্ডভ্যান আহত করে চলে গেছে। বড়ই মর্মান্তিক। বাংলাদেশ পুলিশ মেডেল পাওয়া পুলিশ সদস্য কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় গুরুতর আহত হয়ে একটি পাহারাতে হল। এই রোড এক্সিডেন্ট এর জন্য কোন হইচই হয়নি, ফেসবুকে ভাইরাল হয়নি, কোন আন্দোলনের সুযোগ নেই।যতটুকু জানি ক্ষতিপূরণের জন্য কোন দাবী করা হয়নি।

অফিসের সম্পত্তি বেশ কয়েকটি রোড এক্সিডেন্ট এ ঘটনাবলী জাতির বিবেককে নাড়া দিয়েছে।এই পুলিশ কনস্টেবল এই 26 জন বাসের যাত্রীর প্রাণ বাঁচিয়েছিলেন।জানিনা সেই 26 জন এই সংবাদটি জানেন কিনা?

পুলিশ সদস্য হলেও সে একজন দেশের নাগরিক তো বটে। তার পাশে আমরা সবাই দাঁড়াই। অন্তত আর কিছু না দিতে পারি সহানুভূতি দেই। সচেতন

সজ্জন ব্যক্তি থেকে নিচ থেকে এই পুলিশ কনস্টেবল এর পাশে দাঁড়ানোর বিনীত অনুরোধ করছি। জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে এক বীর খুব বেশি দিন আগের ঘটনা নয়। ২০১৭ সালের ৭ জুলাই, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে কুমিল্লার দাউদকান্দির গৌরীপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকার ঘটনা।

চাঁদপুরগামী একটি যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ডোবায় পড়ে যায়। অনেক মানুষ সে ঘটনা প্রত্যক্ষ করেছিলেন।

কিন্তু ডুবে যাওয়া যাত্রীদের উদ্ধারে কেউ এগিয়ে আসেনি। এসেছিলেন একজন, পঁচা দুর্গন্ধযুক্ত ডোবায় পুলিশের ইউনিফর্ম পরেই ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন তিনি। তারপর ২০টি প্রাণ বাঁচিয়েছিলেন, যারা মৃত্যু দুয়ারে পৌঁছে গিয়েছিলেন।

সেটি ছিল একটি অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনা। কিন্তু যে ব্যক্তি সেই দুর্ঘটনায় ২০ জন মৃত্যু পথযাত্রীর জীবন বাঁচালেন, আজ তিনিই সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। পুলিশের কনস্টেবল পারভেজ এর নাম তখন পত্র পত্রিকায় ফলাও করে প্রচার হয়েছিল। এখনও তার খবর পত্রিকায় প্রকাশিত হচ্ছে, তবে এখন তার দুর্ঘটনায় পা হারানো পঙ্গুত্বের খবর। পুলিশের সর্বোচ্চ পুরস্কার বিপিএম খেতাব প্রাপ্ত এ সাহসী বীর আর কখনও সুস্থভাবে হাঁটতে পারবেন না।

কখনও চোখের সামনে কোন দুর্ঘটনা ঘটলে উদ্ধার করতে ঝাঁপিয়ে পড়তে পারবেন না।

এখন সে জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে থাকা এক বীর। গতকাল ২৭ মে সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মুন্সীগঞ্জ জেলার গজারিয়ার জামালদি বাসস্ট্যান্ডের সামনে একটি বেপরোয়া কাভার্ডভ্যান তাকে ধাক্কা দেয়।

কাভার্ডভ্যানের চাকায় পিষ্ট হয়ে হাঁটুর নিচ থেকে কেটে ফেলা হয়েছে তার ডান পা। পা হারিয়ে পারভেজ এখন পঙ্গু হাসপাতালের আইসিইউতে জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। এতগুলো মানুষের জীবন বাঁচানো পারভেজ আজ নিজের জীবন বাঁচাতে সকলের নিকট দোয়া চেয়েছেন।

আস/এসআইসু

Facebook Comments