পুলিশের কর্তব্য কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে শ্রমিক লীগ নেতাকে আটক

বেলায়েত হোসেন রামগতি প্রতিনিধি

লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে পুলিশকে মারধর ও পুলিশের কর্তব্য কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে শ্রমিক লীগ নেতা জামাল উদ্দিনকে আটক করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ। শুক্রবার আটকের পর তাকে রাতে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে ট্রাফিক সার্জেন্ট মোবারক হোসেন বাদী হয়ে রামগতি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। জামাল রামগতির পৌর শহরের ৭ নং ওয়ার্ডের আব্দুল মালেকের ছেলে এবং উপজেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক।

মামলার এজাহার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে ট্রাফিক পুলিশ সার্জেন্ট মোবারক হোসেন তার দুই ট্রাফিক পুলিশ সদস্য নিয়ে রামগতি থানার পাশে যানবাহন তল্লাশি শুরু করেন। এ সময় লক্ষ্মীপুর থেকে রামগতির উদ্দেশে ছেড়ে আসা একটি পিকআপ থামানো হলে চালক গাড়ি থেকে নেমে দৌড়ে তাদের নেতা জামাল উদ্দিনকে ডেকে আনে। এ সময় জামাল উদ্দিন পুলিশ কর্মকর্তা মোবারক হোসেনের সাথে কথা-কাটাকাটি ও হাতাহাতির একপর্যায়ে তাকে ধাক্কা দিয়ে মাটিতে ফেলে দেন। এ সময় পুলিশ সদস্য আনোয়ার হোসেন বাধা দিলে তাকেও মারধর করে আহত করা হয়। পরে ওয়াকিটকি ম্যাসেজে থানা পুলিশ খবর পেয়ে তাদেরকে উদ্ধার করে এবং জামাল উদ্দিনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশ কর্মকর্তা মোবারক হোসেন বাদী হয়ে পুলিশের কর্তব্য কাজে বাধা দেওয়া ও পুলিশকে মারধরের অভিযোগ এনে রামগতি থানায় জামাল উদ্দিনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় জামাল উদ্দিনকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে শুক্রবার আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

শনিবারে রামগতি থানার ওসি এটিএম আরিচুল হক এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, পুলিশের কর্তব্য কাজে বাধা দেওয়া ও পুলিশকে মারধরের অভিযোগে আটককৃত জামাল উদ্দিনকে জেলে পাঠানো হয়েছে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box