পাকিস্তানের বোলিং নিয়ে হতাশ শোয়েব

আলোকিত সকাল ডেস্ক

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে চতুর্থ ওয়ান ডে ম্যাচে ৩৪০ রান করেও পরাজয় আটকাতে পারেনি পাকিস্তান। ফলে বিশ্বকাপের আগে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওয়ান ডে সিরিজও হেরে গেল সরফরাজ খানের দল। পাকিস্তানের এই পারফরম্যান্স মেনে নিতে পারেননি পাকিস্তানের সাবেক পেসার শোয়েব আখতার। ম্যাচ শেষে তার টুইট, ৩০০ রানের উপর রান আটকাতেও আমরা ব্যর্থ হলাম। বোলিং নিয়ে কোনও ভাবেই সন্তুষ্ট হওয়া যাচ্ছে না।

৫০ ওভারে সাত উইকেট হারিয়ে ৩৪০ রান করে পাকিস্তান। ১১৫ রান করেন বাবর আজম। হাফসেঞ্চুরি করেন মহম্মদ হাফিজও। জবাবে ২১৬ রানে পাঁচ উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। জো রুট, জস বাটলার, মইন আলির মতো ব্যাটসম্যান প্যাভিলিয়নে ফিরে গিয়েছিলেন। কিন্তু ফিনিশারের কাজ করেন বেন স্টোকস। ৬৪ বলে অপরাজিত ৭১ রান করে দলকে জেতান তিনি।

শোয়েবের ক্ষুব্ধ হওয়ার যথেষ্ট কারণ রয়েছে। তৃতীয় ওয়ান ডেতেও ৩৫৯ রান করে বিপক্ষকে আটকাতে পারেনি পাকিস্তান। সে ম্যাচের পরেই বিশ্বকাপ দলে ফেরানো হয় মহম্মদ আমিরকে। কিন্তু তার চিকেন পক্স হওয়ায় কবে সুস্থ হবেন তা জানা নেই অধিনায়ক সরফরাজ়ের।

বিশ্বকাপের আগে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টানা তিনটি ওয়ান ডে ম্যাচে তিনশোর উপরে রান করেও জয় ধরে রাখা গেল না। হতাশ পাক অধিনায়ক সরফরাজ মেনে নিয়েছেন, মাঠে তাদের আরও বেশি পরিণত ক্রিকেট খেলতে হবে। সেই ব্যর্থতার জন্য তিনি দায়ী করেছেন বিশ্রী ফিল্ডিংকে। সরফরাজ বলেছেন, হাতে আমাদের যথেষ্ট রান ছিল। কিন্তু ম্যাচ বেরিয়ে গেল বাজে ফিল্ডিংয়ের জন্য। আমরা তো বেশ কয়েকটা সহজ ক্যাচ হাতছাড়া করেছি। সেখানেই না থেমে পাক অধিনায়ক আরও বলেছেন, গত দেড় বছর ধরে আমরা এই জায়গায় উন্নতি করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। কিন্তু সেই প্রক্রিয়া যে খুব একটা ফলপ্রসূ হয়নি, সেটা আবারও স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে। বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচ খেলতে নামার আগে যে কোনও মূল্যে আমাদের সেই ব্যর্থতা কাটিয়ে উঠতেই হবে।

তারই মধ্যে শুক্রবারের ম্যাচে কনুইয়ে চোট পেয়েছেন ওপেনার ইমাম উল হক। সরফরাজ বলেছেন, কনুইয়ে চোট লাগলেও তা খুব মারাত্মক বলে মনে হয় না।

আস/এসআইসু

Facebook Comments