নায়িকা পপিকে বিয়ে করতে চাওয়া সেই যুবকের পরিচয়

ছবি: সংগৃহীত
চিত্রনায়িকা পপিকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে দেশীয় একটি গণমাধ্যমে চিঠি পাঠিয়েছেন জিকো নামের এক যুবক। টাইপ করা চিঠিতে নিজের ফোন নাম্বারও যোগ করেছেন তিনি। চিঠির সূত্র ধরে যোগাযোগ করা হয় জিকোর সঙ্গে।

চিঠিটা কি পপির কাছে গেছে? আলাপের শুরুতেই এমন প্রশ্ন করেন জিকো। পপিকে বিয়ে করতে চাওয়া যুবকের পুরো নাম মো. মহাসিন সরকার (জিকো)। সিরাজগঞ্জ জেলার উল্লাপাড়া থানার মোহনপুরে তার বাড়ি। জিকোর জন্ম ১৯৮৪ সালে।

এতো নায়িকা থাকতে পপিকেই কেন বিয়ে করতে চান? জানতে চাইলে জিকো এক কথায় বলেন, ‘দরকার’। আবারও প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘আমার দরকার খুব ওকে।’

আপনি কি পপিকে ছোটবেলা থেকে পছন্দ করেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে জিকো বলেন, ‘ইদানিং। বছর তিনেক ধরে।’

আলাপকালে জিকো জানান দুটি ট্রাক রয়েছে তার। পাশাপাশি বগুড়ায় ইলেকট্রনিক্স পণ্য বিক্রয়ের দোকান রয়েছে তার। চিঠিতে জিকো লেখেন, ‘পপি আমি বিএনপি দল করি, আমার অনেক ক্ষমতা’।

বিএনপি’র কোন পর্যায়ে আছেন জানতে চাইলে এ যুবক বলেন, ‘আছি একটা পর্যায়ে। এমপির সাথে থাকি তো।’ এমপির নাম জানতে চাইলে জিকো সাফ জানান, এতো কিছু বলা যাবে না। দলীয় ব্যাপার।

আরও পড়ুন: পপিকে বিয়ে করতে যুবকের চিঠি, এমপি বানানোর আশ্বাস

যদি পপি বিয়ে করতে রাজি হয় তাহলে পপিকে নিয়ে কোথায় থাকবেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে জিকো বলেন, ‘বগুড়া থাকব, ঢাকায়ও থাকব। পপি যেখানে থাকতে রাজি হয় সেখানেই থাকব।’

চিঠিতে জিকো লিখেছেন, ‘পপি আমি তোমাকে অনেক ভালোবাসি। আমি তোমাকে বিয়ে করব। আমার জীবনের চেয়েও বেশি ভালোবাসি। আমি বিএনপি দল করি, আমার অনেক ক্ষমতা। আমি তোমাকে বিএনপি থেকে এমপি বানাব। তুমি এমপি হয়ে সংসদে যাবে। তুমি জীবনে অনেক স্বপ্ন দেখেছ। শিল্পপতির বা ডিসির বউ হবে। তোমার স্বপ্ন পূরণ হয়নি। আল্লাহপাকের নিয়তির বিধান মেনে একটি রাস্তার ছেলেকেই তুমি বিয়ে কর। তুমি ভাবতে পার রাজনীতি করা মানে খারাপ। আমি কোনো খারাপ কাজ করি না, ব্যবসা করি।’

পপির থেকে জিকো বয়সে ছোট উল্লেখ করে তিনি আরও লেখেন, ‘পপি, ছোট পৃথিবীতে অহংকার করার কিছু নেই। আমি কোনো দিন তোমার একটি কথারও অবাধ্য হব না। তুমি যে ভাবে চলছো ঠিক সেই ভাবেই চলবে। তোমাকে আমি কোনো দিন ফুলের ছোঁয়াও দেব না। তুমি যত ব্যস্ত থাক না কেন আমার সাথে ফোনে কথা বলবে।’

Facebook Comments