নগ্ন ভিডিও দেখিয়ে গৃহবধূকে একাধিকবার ধর্ষণ

আলোকিত সকাল ডেস্ক

গোসলের সময় গৃহবধূর নগ্ন ভিডিও ধারণ করে তা ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করেছে এক দুর্বৃত্ত। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় মিলন রাঢ়ী নামে একজন গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বুধবার দুপুরে মিলনকে আদালতে সোপর্দ করার বিষয়টি নিশ্চিত করে উজিরপুর মডেল থানার ওসি। মঙ্গলবার রাতে মোড়াকাঠি গ্রামের ফারুক রাঢ়ীর ছেলে মিলন রাঢ়ীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এদিকে স্থানীয় প্রভাবশালীরা ১০ হাজার টাকায় মধ্যস্থতা করতে চাইলে তা মেনে না নেয়ায় গৃহবধূ ও তার স্বামীকে ভাড়া বাসা থেকে নামিয়ে দেয়া হয়েছে।

গৃহবধূ বলেন, দেড় বছর ধরে উপজেলার দক্ষিণ মোড়াকাঠী গ্রামের হারুন হাওলাদারের বাড়িতে দিনমজুর স্বামীর সাথে ভাড়া থাকছেন তিনি। ছয়মাস আগে ওই বাড়ির অপর ভাড়াটিয়া মিলন রাঢ়ী গোপনে মোবাইলে ফোনে তার নগ্ন ছবি ও ভিডিও ধারণ করে। এরপর ওই ছবি ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে একাধিকবার তাকে ধর্ষণ করে।

তিনি আরো জানান, কয়েকদিন আগে ওই ছবি ও ভিডিও তার স্বামীর কাছে দেখানোর কথা বলে ভয়ভীতি দেখিয়ে পুনরায় ধর্ষণের চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়ে মিলন তার স্বামীকে নগ্ন ভিডিও দেখায়। এ নিয়ে তাদের পারিবারিক কলহ দেখা দেয়।

পরবর্তীতে বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে গত ১৭ মে রাতে স্থানীয় প্রভাবশালীরা গৃহবধূর বাসায় গিয়ে বিষয়টি ধামাচাঁপা দেয়ার জন্য ১০ হাজার টাকা দিয়ে থানা পুলিশসহ কাউকে না জানাতে হুমকি দেন।

গৃহবধূর স্বামী বলেন, স্থানীয় প্রভাবশালীদের কাছে ওই ১০ হাজার টাকা ফেরত দেয়ায় আমাদের ভাড়া বাসা থেকে নামিয়ে দেয়া হয়।

এ ব্যাপারে উজিরপুর মডেল থানার ওসি শিশির কুমার পাল জানান, মঙ্গলবার রাতে ভিকটিমের কাছ থেকে অভিযোগ পাওয়ার পরপরই অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত মিলন রাঢ়ীকে আটক করা হয়। পরে গৃবধূর দায়েরকৃত মামলায় মিলনকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে সোপার্দ করা হয়।

আস/এসআইসু

Facebook Comments