দোকানের মধ্যে আপত্তিকর অবস্থায় স্ত্রী, যা করলেন স্বামী

আলোকিত সকাল ডেস্ক

দোকানের মধ্যে আপত্তিকর অবস্থায় স্ত্রীকে দেখে ফেলায় প্রেমিকের মাথা ফাঁটিয়ে দিল স্বামী। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুরে। খবর ভারতীয় গণমাধ্যম জি-নিউজের।

সোনারপুরের দাসপুরের বাসিন্দা মলয় কর্মকার। নরেন্দ্রপুর মেনগেটের কাছে তাঁর একটি চায়ের দোকান রয়েছে। গত কয়েক মাস দোকান চালানোর ভার নিয়েছিলেন স্ত্রী রেখা কর্মকার। জানা গিয়েছে, দু’মাস ধরে রেখা গভীর রাতে দোকান বন্ধ করে বাড়ি ফেরেন। আবার কাকভোরে গিয়ে দোকান খোলেন। এরকম বেশ কিছুদিন চলার পর, মলয় কর্মকার স্ত্রীকে দোকানে যেতে বারণ করেন। জানান তিনিই এবার থেকে দোকানে যাবেন।

কিন্তু স্বামীর কথায় কর্ণপাত না করে দোকানে চলে যান রেখা। এরপর শনিবার গভীর রাত পর্যন্ত স্ত্রী বাড়ি না ফেরায়, সটান দোকানে গিয়ে হাজির হন মলয়বাবু। সেখানে গিয়ে তিনি এক ব্যক্তির সঙ্গে স্ত্রীকে দোকানের মধ্যে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পান। ওই ব্যক্তির পরিচয় জিজ্ঞাসা করলে স্ত্রীর সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে মলয় কর্মকার।

অভিযোগ, তখনই পিছন দিক থেকে ওই ব্যক্তি বাঁশ দিয়ে মলয় কর্মকারের মাথায় মারেন। বাঁশের ঘায়ে মাথা ফেটে যায় তাঁর। সংজ্ঞা হারান তিনি। এই ঘটনায় স্ত্রী রেখা কর্মকার ও তাঁর প্রেমিক জগদ্দলের বাসিন্দা পালন সাঁপুইয়ের নামে নরেন্দ্রপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই ব্যক্তি। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে নরেন্দ্রপুর থানার পুলিশ।

আস/এসআইসু

Facebook Comments