দিনের পর দিন ধর্ষণ

আলোকিত সকাল ডেস্ক

নার্সিং কলেজে ফ্রিতে ভর্তি করার প্রস্তাব দিয়ে কিশোরীকে দিনের পর দিন ধর্ষণ করেছে এক চিকিৎসক। এমন ঘৃণ্য ঘটনা ঘটেছে নরসিংদী সদর উপজেলায়। পুলিশ অভিযুক্ত চিকিৎসককে আটক করেছে। নোয়াখালীতে ৩ সন্তানের জননী এক গৃহবধূকে গণধর্ষণের ৪৮ ঘণ্টা যেতে না যেতেই এবার শিশু ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। দিনাজপুরে ছাত্রী ও ঝিনাইদহে পাটক্ষেতে নিয়ে প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়া চট্টগ্রামে একজনসহ বিভিন্ন স্থানে ধর্ষণের অভিযোগে ৫ জনকে আটক করেছে পুর্লিশ। নরসিংদী : নরসিংদীতে নার্সিং কলেজে ফ্রিতে ভর্তি করার কথা বলে বাসায় রেখে এক কিশোরীকে দিনের পর দিন ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় গত শুক্রবার অভিযুক্ত চিকিৎসক জুলফিকার আলীকে আটক এবং ওই কিশোরীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। অভিযুক্ত জুলফিকার আলী গাজীপুর জেলার হোতাপাড়া থানার মনিপুর গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে। তিনি নরসিংদী সদর উপজেলার উত্তর শীলমান্দী এলাকায় ছনিয়া নিটওয়্যার মিলসে শ্রমিকদের চিকিৎসা সেবায় কর্মরত ছিলেন। জুলফিকার আলী এমবিবিএস ডাক্তার।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উত্তর শীলমান্দী এলাকায় ছনিয়া নিটওয়্যার মিলসে শ্রমিকদের চিকিৎসায় কর্মরত ছিলেন জুলফিকার আলী। গত দুই মাস আগে দক্ষিণ শীলমান্দী এলাকার সিরাজ উদ্দিনের বাড়িতে তিনি বাসা ভাড়া নেন। ওই সময় ভাগনি পরিচয় দিয়ে ওই কিশোরীকে বাসায় তোলেন চিকিৎসক জুলফিকার আলী। এরপর থেকে মেয়েটিকে বাসায় আটকে রেখে দিনের পর দিন ধর্ষণ করেন। চিকিৎসক এবং ওই কিশোরীর গতিবিধি সন্দেহজনক হওয়ায় তাদের ওপর নজর রাখতে শুরু করেন বাড়ির মালিক। একপর্যায়ে মেয়েটি বাড়ির মালিককে সব কিছু খুলে বলে। পরে শুক্রবার বাড়ির মালিক চিকিৎসক জুলফিকার আলীকে বাসায় ঢেকে এনে পুলিশে সোপর্দ করেন।

নির্যাতনের শিকার ওই কিশোরী বলে, স্বপ্ন ছিল লেখাপড়া করে মানুষের সেবা করবো। তাছাড়া আমি লিভার রোগে ভুগছিলাম। চিকিৎসার জন্য মা এই ডাক্তারের (জুলফিকার আলী) কাছে নিয়ে যায়। সবকিছু জেনে ডাক্তার আমাকে নার্সিং কলেজে ফ্রিতে ভর্তি করার প্রস্তাব দেন। সেই জন্য নরসিংদীতে আসতে হবে বলে জানান। একই সঙ্গে তার বাসার কাজকর্ম করে দেয়ার কথা বলেন। সরল বিশ্বাসে মা আমাকে এখানে পাঠায়। বাড়িতে আসার পর ডাক্তারের রূপ পাল্টে যায়। খারাপ কাজে রাজি না হলে নানা রকম ভয়ভীতিও দেখাতো। পরে বাড়িওয়ালা চাচাকে জানাই।
নরসিংদী সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দুজ্জামান বলেন, চিকিৎসক জুলফিকার আলীকে আটক করা হয়। ওই কিশোরীর অভিবাবকরা ময়মনসিংহ থেকে নরসিংদী আসলে এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

চট্টগ্রাম : নগরীতে শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার শাহিন মিয়া (৩৪) ট্রাকচালক বলে জানিয়েছে পুলিশ। গত শুক্রবার নগরীর কোতোয়ালী থানার আসকার দিঘীর পশ্চিম পাড় এলাকা থেকে এ যুবকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশ জানায়, ভাড়াটে শাহিন ওইদিন দুপুরে প্রতিবেশী আরেকজন ভাড়াটের কিশোরী কন্যাকে পরিবারের লোকজনের অনুপস্থিতির সুযোগে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। মেয়েটির চিৎকারে লোকজন এগিয়ে এলে শাহিন মিয়া পালিয়ে যায়। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। শাহিন মিয়া ব্রাহ্মণবাড়ীয়ার দরখা বাস স্টেশন এলাকার হামদু মিয়ার বাড়ির মৃত হামদু মিয়ার ছেলে। এ ব্যাপারে শিশুটির বাবা শাহিনের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে
নোয়াখালী : নোয়াখালীতে ৩ সন্তানের জননী এক গৃহবধূকে গণধর্ষণের ৪৮ ঘণ্টা যেতে না যেতেই এবার শিশু ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অসুস্থ ভিকটিমকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটছে বেগমগঞ্জ উপজেলার রাজগঞ্জ ইউনিয়নের নানুপুর গ্রামে গত বৃহস্পতিবার ।

জানা যায়, নোয়াখালী জেলা স্কুলের এক শিক্ষকের শিশু কন্যাকে একই বাড়ীর মোশারেফ হোসেন (৬০) ধর্ষণ করে। পরে তাকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের আরএমও ডা. সৈয়দ আ. আজিম ভর্তির বিষয় নিশ্চিত করে বলেন, ভিকটিমের চিকিৎসা ও পরীক্ষা নিরীক্ষা চলছে। বেগমগঞ্জ থানার ওসি ফিরোজ আলম মোল্লা বলেন, বিষয়টি আমি জেনেছি। তবে এখনো মামলার জন্য কেউ আসেনি।

এর আগে গত বুধবার উপজেলার চানন্দী ইউনিয়নের চর আমানতপুর গ্রামে বাবার বাড়ীতে বেড়াতে আসেন পার্শ্ববর্তী গ্রামের আশিক উল্লার স্ত্রী (২৩)। রাত ২টায় একই গ্রামের সাব উদ্দিন, জামাল মাঝি ও আলমগীর তার বাবার বসত ঘরে প্রবেশ করে। এ সময় ঘরে কোনো পুরুষ মানুষ ছিল না। প্রথমে ওই নারীর সাথে ঘরে প্রবেশকারী তিন ব্যক্তির ধস্তাধস্তি হয়। পরে ওই নারীকে মারধর করে এবং পালাক্রমে গণধর্ষণ করে চলে যায় তারা। হাতিয়া থানার ওসি আবুল খায়ের বলেন, এ ব্যপারে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

দিনাজপুর : দিনাজপুরের বীরগঞ্জে শুক্রবার বাগানে লিচু খেতে গিয়ে ষষ্ঠ শ্রেণির এক স্কুলছাত্রী সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এই অভিযোগে লিচুবাগানের পাহারাদার খলিল (২৩) ও রণজিৎ দেবনাথ (৩০) নামের দুজনকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী।
ওসি শাকিলা পারভীন স্থানীয় লোকজনের বরাত দিয়ে জানান, ওই ছাত্রীর বাবা-মা দুজনই ঢাকায় কাজ করেন। ছাত্রীটি ফুফুর বাড়িতে থাকে। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার শতগ্রাম ইউনিয়নের রাঙ্গালীপাড়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা গোপাল মাস্টারের লিচুবাগানে লিচু খেতে যায় ছাত্রীটি। এ সময় তাকে একা পেয়ে ধর্ষণ করে বাগানের দুই পাহারাদার খলিল ও রণজিৎ দেবনাথ। ছাত্রীটি বাগান থেকে কাঁদতে কাঁদতে বেরিয়ে যাওয়ার সময় আশেপাশের লোকজন তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখে জিজ্ঞাসাবাদ করে। এ সময় ওই ছাত্রীর অভিযোগ পেয়ে এলাকাবাসী দুই পাহারাদারকে আটক করে এবং পুলিশকে খবর দেয়।

খবর পেয়ে বীরগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আমজাদ আলীর নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে বিকেল সাড়ে পাঁচটায় দুই ধর্ষককে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে। আটক খলিল ও রণজিৎ দেবনাথ প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন। ধর্ষণের শিকার শিশুকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

ঝিনাইদহ : ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার যাদবপুর গ্রামে এক তরুণের বিরুদ্ধে প্রতিবন্ধীকে (১৭) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ওই তরুণী বাড়ির পাশে নদীতে কাপড় ধুতে গেলে তাকে পাটক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণ করেন একই গ্রামের ছাব্দুল মোল্লার ছেলে রাব্বুল মোল্লা (২১)। শৈলকুপার ফুলহরি আলমডাঙ্গা আব্দুল হাই কলেজের ছাত্র রাব্বুল মোল্লা ঘটনার পর থেকেই পলাতক। পরে তরুণীকে শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box