দলপতি কথন: দিমুথ করুনারত্নে (শ্রীলংকা)

আলোকিত সকাল ডেস্ক

বিশ্বকাপ দ্বারপ্রান্তে, আর মাত্র ৮ দিন । তারপরই ৩০ মে থেকে শুরু হবে বিশ্ব ক্রিকেটের মাঠের লড়াই। যেখানে অংশ নেবে ক্রিকেটের পরাশক্তি ১০ দল। ইতিমধ্যে প্রতিটা দল ঘোষণা করেছে তাদের দলীয় স্কোয়াড। যেখানে দলকে নেতৃত্ব দেয়ার জন্য প্রতিটি দলে রয়েছেন একজন করে দক্ষ দলপতি।

সেই ১০ দলের দলপতিদের এ পর্যন্ত বিশ্বকাপ মিশন নিয়ে ডেইলি বাংলাদেশের পাঠকদের জন্য আমাদের এই আয়োজন।

আজ থাকছে শ্রীলংকা দলের বর্তমান সফল অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নের কথা।

দিমুথ করুনারত্নে (শ্রীলংকা)

কুমার সাঙ্গাকারার অবসরের পর টেস্ট দলে সেরা পারফরমার হিসেবে নিয়মিতই খেলে আসছিলেন দিমুথ করুনারত্নে। তবুও কিছুতেই খুলছিলো না ওয়ানডে দলের দরজা। ২০১১ থেকে ২০১৫, এই চার বছরে সাকুল্যে খেলেছেন মাত্র ১৭ টি ওডিয়াই ম্যাচ। ৪ বছর দলে না খেলা কাউকে যদি অধিনায়ক ঘোষণা করা হয় তবে সেটি একজন পাগল ও হয়তো বিশ্বাস করবেনা।

শ্রীলংকা বোর্ড থেকে যখন করুনারত্নকে বিশ্বকাপ দলের অধিনায়ক ঘোষণা করা হয় তখন চারদিকে সমালোচনার বন্যা বয়ে যায়। এতো কিছুর পরেও এটি যে খারাপ সিদ্ধান্ত সেটির পক্ষে তেমন জোরালো যুক্তি পাওয়া যায়নি।

৩১ বছর বয়সী করুনারত্নে অভিষেকের পর মাত্র ১৭টি ওডিআই ম্যাচ খেলেছেন। পারফরম্যান্স খুব আহামরি না। প্রায় ১৬ গড় ও সর্বোচ্চ ৬০ রানের ইনিংস সেটাই প্রমাণ করে।

তবে টেস্ট ক্যাপ্টেন হিসেবে তার অব্যাহত সাফল্যের কারণে মূলত নির্বাচকদের তাকে বিশ্বকাপ দলের অধিনায়ক হিসেবে নিতে বাধ্য করেছে।

দিমুথ করুনারাত্নকে অধিনায়কত্ব দেওয়াটাই ছিল শ্রীলংকার সবচেয়ে বড় চমক। সর্বশেষ তিনি খেলেছিলেন ২০১৫ সালের বিশ্বকাপে।

ইংল্যান্ড বনাম শ্রীলংকার ম্যাচটির পর আর ওয়ানডেতে দেখা যায়নি তাকে। এক বিশ্বকাপ খেলে ফের ওয়ানডে খেলবেন পরের বিশ্বকাপে। তাও আবার অধিনায়ক হয়ে!

সম্প্রতি টেস্টে তার নেতৃত্বে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজ জিতে লংকানরা। এ কারণেই হয়তো তার ওপর ভরসা রাখা হয়েছে।

শ্রীলংকান দলে অনেকেরই রয়েছে ওয়ানডেতে দীর্ঘ বিরতি। তিনি নিজেও ফিরছেন লম্বা সময় পর।

তাই এবারের বিশ্বকাপে নেতৃত্ব দেওয়াটা একটা বড় চ্যালেঞ্জ হতে পারে দিমুথ করুনারত্নের জন্য।

শ্রীলংকা স্কোয়াড :

দিমুথ করুনারত্নে (অধিনায়ক), লাসিথ মালিঙ্গা, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস, থিসারা পেরেরা, কুশাল পেরেরা, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, কুশাল মেন্ডিস, ইসুরু উদানা, মিলিন্দা সিরিবর্ধনে, অভিশকা ফের্নান্দো, জীভান মেন্ডিস, লাহিরু থিরিমান্নে, জেফরি ভ্যান্ডারসে, নুয়ান প্রদীপ, সুরঙ্গা লাকমাল।

আস/এসআইসু

Facebook Comments