দরজায় ঈদের উপস্থিতি, আনন্দ নেই বিএনপিতে

আলোকিত সকাল ডেস্ক

ঈদের আনন্দ নেই বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির নেতাকর্মীদের মাঝে। এ নিয়ে তাদের কোনো তৎপরতা নেই। ব্যানার-পোস্টার বা অন্য উপায়ে ঈদ শুভেচ্ছা জানানোর পর্বও এবার অনুপস্থিতির খাতায়। যদিও সরকারি দল আওয়ামী লীগসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীদের মাঝে ঈদ কেন্দ্রীক তৎপরতা দৃশ্যমান।

বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠনের থানা ওয়ার্ড নেতাদের কাছ থেকে জানা যায়, বিএনপি এবার ঈদ শুভেচ্ছা অনুষ্ঠান আয়োজন করা হবে কি না, তা নিয়ে জোর সন্দেহ আছে। বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া কারাভোগে আছেন এটাই এর মূল কারণ। ঈদের দিনে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবর জিয়ারত করবেন বলে তারা জানান।

দলের সিনিয়র নেতাদের অধিকাংশই ঈদুল ফিতরে ঢাকায় থাকছেন। তারা হলেন- মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, লে. জে. (অব.) মাহাবুবুর রহমান, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান, বেগম সেলিমা রহমান এবং যুগ্ম মহাসচিবদের মধ্যে সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল।

অন্যদিকে নিজ সংসদীয় আসনে ঈদ উদযাপন করতে যাচ্ছেন- দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ড. আব্দুল মঈন খান, ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান, আলতাফ হোসেন চৌধুরী, বরকতউল্লা বুলু, মো. শাজাহান, চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, ব্যারিস্টার শাজাহান ওমর, মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, অ্যাড. আহমেদ আযম খান, ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, শামসুজ্জামান দুদু, উপদেষ্টা পরিষদের আবুল খায়ের ভূঁইয়াসহ অনেকেই।

এবারের ঈদ উদযাপন প্রসঙ্গে রুহুল কবীর রিজভী আহমেদ বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া কারাবন্দি। মিড নাইট সরকারের মামলা-হামলায় জর্জরিত দলের নেতাকর্মীরা। ফলে নিদারুণ কষ্টের মধ্যে নেতাকর্মীরা ঈদ যাপন করবেন।

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box