তালপাতায় জীবিকা

আলোকিত সকাল ডেস্ক

গরমের শুরুতেই ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়ায় ব্যস্ত হয়ে পড়েছে হাত পাখা তৈরির কারিগরা। গরমে মানুষকে একটু শান্তির পরশ দিতে দিন রাত পরিশ্রম করে তৈরি করছেন হাতপাখা। পূর্ব পুরুষদের এ ব্যবসা এখনও ধরে রেখে জীবিকা নির্বাহ করছে ফুলবাড়ীয়া উপজেলার কালাদহ ইউনিয়নের বিদ্যানন্দ গ্রামের দুই শতাধিক পরিবার।

বিদ্যানন্দ ও তার আশপাশের এলাকার হাতপাখা তৈরির কারিগররা বলেন, গরম পড়লেই হাতপাখা পল্লীর কারিগরদের ব্যস্ততা বেড়ে যায়। যেন কথা বলার সময় নেই তাদের। শরীর দিয়ে নোনতা পানি বের হলেও নিজেরা হাতপাখা দিয়ে বাতাস খাওয়ার সময় নেই তাদের। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বিদ্যানন্দ গ্রামের পুরুষ মহিলা

সাইফুল বলেন, আমাদের পূর্ব পুরুষরা তালপাখা তৈরি করে জীবিকা চালাতো। আমরাও পূর্ব পুরুষের পেশাটি ধরে রেখেছি। ২০০টি পরিবার পাখা তৈরির কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করছে।

পাখা তৈরির কারিগর ও পাইকারি বিক্রেতা ছাইফুল ইসলাম জানান, হাতপাখা তৈরির প্রধান উপকরণ তালপাতা সংগ্রহ করা হয় শীতকালে। বিভিন্ন এলাকার থেকে তারা তালপাতা সংগ্রহ করে থাকেন। তালপাতা বিক্রির জন্য পাইকাররা ভ্যানগাড়ি করে বাড়ি বাড়ি নিয়ে আসে। তালপাতা এনে পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হয়। তারপর পাতা ভিজে নরম হয়ে গেলে পানি থেকে উঠিয়ে তা কেটে দুই ভাগে ভাগ করা হয়। একটা পাতায় দুটো পাখা হয়। এ পাতা পুনরায় বেঁধে রাখা হয়।

এভাবে রাখার পর গরমের মৌসুম আসার সঙ্গে সঙ্গে সেগুলো আবার পানিতে ভিজতে দেওয়া হয়। পানিতে দেওয়ার পর পাতা নরম হয়ে গেলে শুরু হয় মূল পাখা তৈরির কাজ। সাধারণত পরিবারের বড়রা পানিতে ভিজে নরম হয়ে যাওয়া পাতা ছাড়িয়ে পাখা আকৃতির করে চারিদিক কেটে সমান করে থাকে। আর বাড়ির মেয়েরা সেগুলো বাঁশের সলা দিয়ে বেঁধে ফেলে। পরিবারের ছোটরা এগুলো সুচ আর সুতা দিয়ে সেলাই করে থাকে। এভাবে ব্যবহারের উপযোগী হয়ে উঠে হাতপাখা।

আস/এসআইসুজন

Facebook Comments Box