তারল্য সঙ্কট কাটাতে বাংলাদেশ ব্যাংকের বিশেষ ছাড়

আলোকিত সকাল ডেস্ক

তারল্য সঙ্কটে অব্যাহত দর পতনে রয়েছে দেশের পুঁজিবাজার। লেনদেনও নেমে এসেছে তলানিতে। তবে এবার পুঁজিবাজারে তারল্য সঙ্কট কাটাতে বিশেষ ছাড় দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। যা পুঁজিবাজারের ব্যাংকগুলোর বিনিয়োগের সুযোগ ও তারল্য সঙ্কট কাটাতে সহায়তা করবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

সূত্র জানায়, পুঁজিবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগে (এক্সপোজার) গণণায় সংশোধনী এনেছে বাংলাদেশ। তারই ধারাবাহিকতায় এখন থেকে ব্যাংকের একক ও সমন্বিত হিসাবে অ-তালিকাভুক্ত সিকিউরিটিজের বিনিয়োগ সমন্বয় করা হবে না।

বৃহস্পতিবার (১৬ মে) বাংলাদেশ ব্যাংকের ডিপার্টমেন্ট অব অফ-সাইট সুপারভিমন ডিওএস সার্কুলার নং-২ জারি করেছে। যা বাংলাদেশে কার্যরত সকল তফসিলি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক/ প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট প্রেরণ করা হয়েছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের জারি করা ওই সার্কুলারে বলা হয়, ‘‘সরকারসহ বিভিন্ন অংশীজনের মতামত এবং পুঁজিবাজারের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে তালিকাভুক্ত নয় এরূপ সিকিউরিটিজে (ইক্যুইটি শেয়ার, নন কনভার্টেবল কিউমিউলেটিভ প্রেফারেন্স শেয়ার, নন কনভার্টেবল বন্ড, ডিভেঞ্চার, ওপেন-ইন্ড মিউচ্যুয়াল ফান্ড) ব্যাংকের বিনিয়োগ পুঁজিবাজারে ব্যাংকের মোট বিনিয়োগ (একক ও সমন্বিত) হিসাবায়নের অন্তর্ভুক্ত না করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। এরই প্রেক্ষিত্রে বাংলাদেশ ব্যাংকের ২০১৩ সালের ১৬ সেপ্টেম্বরের ডিওএস সার্কুলার নং-০২ এর ২ (২) নং ক্রমিকের নির্দেশনার সাথে নিম্নোক্ত নির্দেশনাটি নতুনভাবে যুক্ত হবে। (ঙ) পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত নয় এরূপ ইক্যুইটি শেয়ার, নন কনভার্টেবল কিউমিউলেটিভ প্রেফারেন্স শেয়ার, নন কনভার্টেবল বন্ড, ডিভেঞ্চার, ওপেন-ইন্ড মিউচ্যুয়াল ফান্ড।”

বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এ নির্দেশনা অবিলম্বে কার্যকর হবে।

চলতি বছরের জানুয়ারির ২৯ তারিখের পর থেকে অব্যাহত দর পতনে ভুগছে দেশের পুঁজিবাজার।

বুধবার (১৬ মে) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সার্বিক মূল্যসূচক ২০১৭ সালের ৫ জানুয়ারির পর সর্বনিম্ন অবস্থানে স্থিতি পেয়েছিল। তারই ধারাবাহিকতায় অর্থ মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ ব্যাংক, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) দফায় দফায় বৈঠক করেছে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments