ডেঙ্গুতে ৩৪ দিনের শিশুর মৃত্যু

আলোকিত সকাল ডেস্ক

ছেলে তার সুস্থ ছিলো। এমনকি গেল বৃহস্পতিবার বিকেলে ফেসবুকে একটা ছবি আপলোড করেছিলেন। তখনও কেউ ভাবতেই পারেননি তার ডেঙ্গু। কারণ কোনো লক্ষণই ছিল না। শুক্রবার (১৯ জুলাই) দুপুরে ডেঙ্গু ধরা পড়ল। শনিবার সকালেই মারা গেল ছোট্ট শিশু মুসা।

সোমবার (২৩ জুলাই) জাগরণকে কথাগুলো বলছিলেন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া শিশুর মুসার মা নৃত্যুশিল্পী সানজীদা আলম আঁখি ।

আঁখি বলেন, শুক্রবার দুপুরে বাবুর শরীরটা হালকা গরম মনে হচ্ছিলো। ফার্মগেটের মনিপুরে আমার বাসা । গরম হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই বাবুকে নিয়ে যাই মগবাজার আদ দ্বীন হাসপাতালে । সেখানে চিকিৎসক জানালেন বাবুর শরীরের তাপমাত্রা ৯৯ ডিগ্রি। ভয়ের কিছু নেই। নাপা খাওয়ান। কিন্তু আমিই ডাক্তারকে বলি ডেঙ্গু পরীক্ষা করাতে। এরপর বিকেলেই জানলাম বাবুর ডেঙ্গু। চিকিৎসকরা এনআইসিইউতে নিতে বললেন।

এরপর থেকে পুরো শহরের অনেকগুলো হাসপাতাল ঘুরেছি। কোথাও এনআইসিইউতে একটা সিট ফাঁকাও পাইনি। প্রথমে যাই ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে । তারা জানালেন এতো ছোট শিশুর ডেঙ্গুর চিকিৎসা সেখানে নেই। এরপর আরও কয়েকটা হাসপাতাল ঘুরি। কোথায় গেলে বাবুর চিকিৎসা পাব বুঝতেই পারছিলাম না। পরে অনেক রাতে সিট পাই বনশ্রীর আল রাজী হাসপাতালের এনআইসিউতে।তখন আমার বাচ্চার প্লাটিলেট কমে মাত্র আড়াই হাজার। চিকিৎসকরা তখন থেকেই আশা ছেড়ে দিয়েছিলেন।

আস/এসআইসু

Facebook Comments