টানা ৩ দিন দোকান বন্ধ : চন্দ্রগঞ্জে জুয়েলার্স ব্যবসায়ীদের প্রতিবাদ

ইমরান হোসেন,স্টাফ রিপোর্টার

শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির দিনসহ টানা তৃতীয়দিন রোববারও দোকান বন্ধ রেখে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করছে লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জ বাজার জুয়েলার্স ব্যবসায়ী সমিতি। গত মঙ্গলবার রাতে বাড়ি ফেরারপথে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তদের হামলায় চন্দ্রগঞ্জ বাজার জুয়েলার্স ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি জয়দেব নাথকে অপহরণের চেষ্টায় কুপিয়ে আহত করার প্রতিবাদে এবং জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবিতে গত বৃহস্পতিবার সমিতির এক জরুরী সভায় এই কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

চন্দ্রগঞ্জ বাজার জুয়েলার্স সমিতির সাধারণ সম্পাদক সমীর কর্মকার মুঠোফোনে জানিয়েছেন, বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির (বাজুস) এর সাথে যোগাযোগ করে তাদের একদিনের দোকান বন্ধ রাখার কর্মসূচি বর্ধিত করা হয়েছে। যার ফলে গত শুক্রবার থেকে রোববার পর্যন্ত টানা ৩দিন চন্দ্রগঞ্জে সকল স্বর্ণ ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে।
এ দিকে চন্দ্রগঞ্জে লাগাতারভাবে জুয়েলারী ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় দুর্ভোগে পড়েছেন ক্রেতা-বিক্রেতাসহ সাধারণ মানুষ।

অলংকার বিক্রি করতে বাজারে আসা ভুক্তভোগি আফসানা আক্তার জানান, তিনি জরুরী টাকার প্রয়োজনে স্বর্ণ বিক্রি করতে এসেছেন। কিন্তু সব দোকান বন্ধ থাকায় বিক্রি করতে পারেননি। অন্যদিকে সোহেল রানা নামে একজন তার বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠান থাকায় অলংকার কিনতে এসে ফিরে যাচ্ছেন।

স্থানীয়রা জানান, লক্ষ্মীপুর ও নোয়াখালী জেলায় জুয়েলার্স বা সোনা বেচাকেনায় সবচেয়ে বড় বাজার হচ্ছে চন্দ্রগঞ্জ। এখানে প্রতিদিন স্বর্ণ বেচাকেনায় কোটি কোটি টাকা লেনদেন হয়। কিন্তু গত ৩দিন থেকে জুয়েলার্স ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় খুবই সমস্যায় পড়েছেন তারা।

অপরদিকে চন্দ্রগঞ্জ বাজার জুয়েলার্স ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি জয়দেব নাথকে কুপিয়ে আহত করার ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে পুলিশ জানায়। মামলার তদন্তকারী অফিসার চন্দ্রগঞ্জ থানার এসআই মজিবুর রহমান জানান, পশ্চিম জামিরতলী এলাকার নুরআলম প্রকাশ সুজন (২২) নামে একজনকে এ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহভাজন হিসাবে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে চন্দ্রগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল কালাম আজাদ জানান, জুয়েলার্স সমিতির সভাপতিকে কুপিয়ে আহত করার ঘটনায় অজ্ঞাত ৫/৬ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের হয়েছে। পুলিশ নুরআলম সুজন নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে। অন্যান্য আসামিদের চিহ্নিত করে গ্রেপ্তার প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments