ছাত্রলীগ উদারতার এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলো: রাব্বানী

আলোকিত সকাল ডেস্ক

সিনেট সদস্য হিসেবে নুরুল হক নুরকে নির্বাচিত করায় ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) জিএস গোলাম রাব্বানী বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ উদারতার এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।

তিনি বলেন, ভোটে নিরঙ্কুশ ব্যবধানে জয়ী হয়েও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মতামতের উপর শ্রদ্ধা প্রদর্শন করে স্বীয় পদটি ছেড়ে দিয়ে ছোটভাই নুরকে জায়গা করে দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ডাকসুর এজিএস সাদ্দাম হোসেন।

এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাথে যোগসুত্র না থাকা সত্ত্বেও বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য হয়েছেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সনজিৎ চন্দ্র দাস।

১৯৭৩ সালের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাদেশের ২০(ঠ) ধারায় বলা হয়েছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) মনোনীত শিক্ষার্থীদের পাঁচজন প্রতিনিধি বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটের সদস্য হবেন।

এ বিষয়ে ক্ষুব্ধ ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর। তিনি বলেন, এ বিষয়ে ডাকসুতে আনুষ্ঠানিক কোনো আলোচনা হয়নি। ছাত্রলীগ যেভাবে সব সিদ্ধান্ত নেয়, সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক যা বলেন, তা-ই ঠিক; ডাকসুতে যেহেতু তাদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা, তাদের সাধারণ সম্পাদক (গোলাম রাব্বানী) এটা ঠিক মনে করেন বলে অন্যদের নামেও সেটা চালিয়ে দিচ্ছেন।

ডাকসুর সদস্য তানভীর হাসান সৈকত বলেন, ডাকসুতে আনুষ্ঠানিকভাবে আলোচনা করে সিনেট সদস্য নির্বাচিত করা হয়নি। ডাকসুতে ছাত্রলীগ প্যানেল থেকে জয়ী আমরা ২৩ জন্য অনানুষ্ঠানিক ভাবে আলোচনায় বসেছিলাম, কিন্তু সেখানে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। প্যানেল কাকে নির্বাচিত করলো সেটা বিষয় না, বিষয় হচ্ছে আনুষ্ঠানিক ভাবে আলোচনা করা হয়নি।

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box