চন্দ্রগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরধরে প্রতিপক্ষের বসতঘরে হামলা

ইমরান হোসেন, স্টাফ রিপোর্টার

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জ থানাধীন চরশাহী ইউপির নুরুল্যাপুর গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরধরে প্রতিপক্ষের বসতঘরে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বসতঘরে থাকা আসবাবপত্র ভাংচুর, লুটপাটসহ ফলজ ও বনজ গাছের চারা বিনষ্ট করা হয়। বুধবার (১২ জুন) সকালে নুরুল্যাপুর গ্রামের মোল্লা বাড়ির আবদুর রহিমের বসতঘরে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার সকালে প্রতিপক্ষ হাজেরা বেগমের নেতৃত্বে অনিক, রবিন মেম্বারসহ ৮-১০ জন বহিরাগত লোকজন মিলে আব্দুর রহিমের স্ত্রী ও সন্তানদের উপর অতর্কিতভাবে হামলা করেছে বলে জানান আব্দুর রহিমের স্ত্রী।

খবর পেয়ে চন্দ্রগঞ্জ থানার এস আই আনোয়ার হোসেনসহ সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

আব্দুর রহিমের ভাই আব্দুর রহমান অভিযোগ করে বলেন আমার সৎ ভাই সৌদি প্রবাসি আবদুল্যাহ আল মামুন (৩২) আমাদের পিতা থেকে সকল সম্পত্তি দলিল করে নিয়ে গেছে। আমাদের খরিদকৃত সম্পত্তির উপরেও সে একটি জাল দলিল সৃজন করে। এবং বিভিন্ন লোকজনের মাধ্যমে বিভিন্ন সময় আমাকে প্রানে হত্যা করার হুমকি দেয়। দশ বিশ লক্ষ টাকা খরচ করে হলেও আমাকে মেরে ফেলবে। আবদুল্যাহ আল মামুনের মোবাইলে কথোপকথনের রেকর্ড আমার কাছে আছে। সে আব্দুর রহমান বলেন আবদুল্যাহ আল মামুন প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে এসব ঘটনায় জড়িত।

তিনি আরো বলেন, নুরুল্যাপুরের রুহুল আমিনের ওয়ারিশগণ হতে বিগত ২০০৪ সালের ২২ সেপ্টেম্বর ৪৮৭১নং সাফ কবলা দলিল মূলে ৫ শতাংশ ও ২০১০ সালের ২ আগষ্ট ৩৬৪১নং দানপত্র দলিল মূলে ২২ শতাংশ জমির মালিক হন আব্দুর রহমান। তিনি উক্ত সম্পত্তির উপর দালান নির্মাণ করে দীর্ঘদিন যাবত ভোগ দখল করে আসছেন।

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box