চকরিয়ায় ছাত্রলীগের প্রীতি ফুটবল ম্যাচ উদ্বোধন

কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধিঃ
বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এইচ এম তাজ উদ্দিন এর উদ্যোগে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের অংশগ্রহনে এক প্রীতি ফুটবল ম্যাচ শনিবার বিকালে চকরিয়া শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে আনন্দমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠিত প্রীতি ম্যাচে শেখ কামাল একাদশ (চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগ) বনাম শেখ জামাল একাদশ (চকরিয়া পৌরসভা ছাত্রলীগ) মুখোমুখি হন। ম্যাচ শেষে পৌর ছাত্রলীগ বিজয়ী হয়েছেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে চকরিয়া শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রীতি ফুটবল ম্যাচটি উদ্বোধন করেছেন চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব জাফর আলম।

অনুষ্ঠিত প্রীতি ফুটবল ম্যাচে অংশনেন শেখ কামাল একাদশের অধিনায়ক মোহাম্মদ মারুফ, সহঅধিনায়ক আকিত হোসেন সজিব ও শেখ জামাল একাদশের অধিনায়ক মিজানুর রহমান, সহ-অধিনায়ক সোহেল রানা পারভেজ, আরহান মাহমুদ রুবেল, ফাহিম, সাকিব, আানাচ, জাহেদ, বোরহান, কাজিম, আসফি, রিয়াদ, ইমন, ইসমাঈল, নওশেদ, মোর্শেদ, রানা, নয়ন, শিহাব, মুন্না,সাহাবদ্দিন, বাবু, সারওয়ার, শামীম, সঞ্জয়, শাকির, রিয়াজসহ উপজেলা ও পৌরসভা ছাত্রলীগের অসংখ্য নেতাকর্মীবৃন্দ।

ম্যাচটি সুচারুভাবে পরিচালনা করেন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন স্বাধীন মঞ্চের উপদেষ্টা ও এমপির সুযোগ্য সন্তান তানভীর আহমেদ সিদ্দিক তুহিন। অনুষ্ঠানে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক তাজ বলেন, সকলের আন্তরিক সহযোগিতায় চকরিয়া উপজেলা, পৌরসভা, মাতামুহুরি ও পেকুয়া ছাত্রলীগকে সুশৃঙ্খল মডেল ইউনিট হিসেবে রূপান্তরিত করতে বদ্ধপরিকর থাকব ইনশাআল্লাহ।

প্রীতি ফুটবল ম্যাচ উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথি আলহাজ জাফর আলম এমপি বলেছেন, নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থী তথা ছাত্রসমাজ হবেন আগামী দিনের স্বনির্ভর দেশগড়ার কারিগর। দেশগড়ার কারিগর ছাত্র সমাজকে মাদকমুক্ত সুন্দর ভবিষ্যত গড়তে হবে। সেইজন্য শিক্ষার্থীদেরকে আর্দশবান সুনাগরিক হিসেবে প্রতিষ্টিত হতে হলে বেশি করে লেখাপড়া করতে হবে। পড়াশোনায় মনোযোগী হয়ে পাশাপাশি অবসর সময় খেলাধুলায় ব্যয় করতে হবে।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার শিক্ষাবান্ধব। শিক্ষার মান উন্নয়নে নিরন্তর কাজ করে চলেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। তাছাড়া ছাত্র-ছাত্রীদের মন ও শরীর ভালো রাখতে ক্রীড়া অনুষ্ঠানের বিকল্প নেই। পড়ালেখার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের নিয়মিত শারীরিক কুচকাওয়াজ ও ব্যায়াম অত্যাবশ্যকীয়। সরকার প্রধান শেখ হাসিনার ঘোষনা মোতাবেক চকরিয়া-পেকুয়াকে নিরক্ষরতার অভিশাপমুক্ত করতে চাই। সেইজন্য শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলা ও সাংস্কৃতি বিষয়ে জ্ঞান অর্জন করতে হবে। তাই চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলার প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সংশ্লিষ্টদের ভুমিকা পালন করতে হবে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box