গৌরীপুর পিতার মামলায় সঞ্জু মিয়া বিপাকে নৈপথ্যে বড় ভাইয়র স্ত্রী নির্যাতন

স্টাফ রিপোর্টার

গৌরীপুর উপজেলার বীর আহাম্মদপুর গ্রামের সঞ্জু মিয়া (৩০) বাবা আব্দুর রহমানের দেয়া মামলায় গ্রেফতার ও জেল হাজতর আতংকে বিপাকে পড়েছে। ময়মনসিংহের বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ৪নং আমলী আদালত গৌরীপুর সিআর মাঃ নং ১৬৪/২০১৯ এ পিতা- বাদী ছেলে আসামি অপর ছেলে সাক্ষী। মামলায় উল্লেখ করা হয়। বাদী বয়াবদ্ধি থাকায় আমার পক্ষে আমার বড় ছেলে ১নং সাক্ষী আঞ্জু মিয়া মামলায় হাজিরা দিয়ে পরিচালনা করিবেন।

গৌরীপুরের এই মামলাটি চাঞ্চল্যসৃষ্টি করছে। দুই ভাই আনজু ও সনজুর মধ্য ঝগড়া হয় আনজুর স্ত্রী রীনা আক্তারকে নিয়ে আনজু দীর্ঘদিন যাবৎ রীনার ভরন পোষন না করে যৌতুকের জন্য নির্যাতন চালিয়ে আসছে এবং প্রথম স্ত্রী রীনার অনুমতি ছাড়াই দ্বিতীয় বিয়ে করে। এ ব্যাপার গ্রাম্য দরবার হয়। সনজু তার ভাবী রীনার পক্ষে আনজু তার বৃদ্ধ বাবা আব্দুর রহমানকে বাদী কর মারপিটের মামলায় সনজু মিয়াকে একমাত্র আসামি করে।

বড় ভাই আনজু মিয়ার চক্রান্ত তার স্ত্রী ৩ সন্তানের জননী রীনা আক্তার স্ত্রীর অধিকার থেকে বঞ্চিত করে এর প্রতিবাদ করতে চতুর আনজু তার ভাই সনজুকে আসামি করে তার বাবাকে মামলার বাদী করছে। এলাকাবাসী এই মামলাক মিথ্যা মামলা বলে দাবি করে সুষ্ঠু তদন্ত হলেই আসল ঘটনা বের হয় আসবে। সনজু পিতা ও ভাইকে মারপিট করেছে বলে মামলা দেয়ায় সনজু করছে গ্রেফতার আংতকে।

কিন্তু সনজুর দাবি আমি নিরীহ। ঘটনার দিন বাবা বা অন্যকাউক মারপিট করিনি। একজন গহবধু রীনার প্রতি আমার বড়ভাই আনজু অবিচার জুলুম করছ আমি তার প্রতিবাদ করছি। নারীর প্রতি পারিবারিক সহিংসতার প্রতিবাদ করায় সনজু আজ মিথ্যা মামলার শিকার।

আস/এসআইসু

Facebook Comments