গোপন অস্ত্র আছে বাংলাদেশের: ওয়ালশ

আলোকিত সকাল ডেস্ক

বিশ্বকাপের আগে দলের গুরুত্বপূর্ণ প্লেয়ারদের চোট আসি আসি ভাব নিয়ে নিয়ে হয়তো অস্বস্তিতেই রাখছে টাইগার টিম ম্যানেজমেন্টকে।

তবে টাইগার বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ যা বললেন তাতে অনেকেই স্বস্তি খুঁজে নিতে পারেন।

তিনি জানালেন, ‘ভালো খবর হলো, যেহেতু রোববারে খেলা সেহেতু আমাদের হাতে সময় আছে। সাইফউদ্দিনসহ অন্যান্যদের চোট পুনর্মূল্যায়ন করতে আজ ও কাল সময় আছে। ওরা আমাদের ফিজিওর তত্ত্বাবধানে আছে। তাছাড়া আজ ওদের ছুটি দেওয়া হয়েছে যাতে করে সুস্থ হয়ে উঠতে পারে। মাশরাফিরও কিছুটা চোট আছে। ফলে আজ তাকে ফ্রি রাখা হয়েছে। কাল ওর চোট পুনর্মূল্যায়ন হবে। মোস্তাফিজ এই অর্থে ফিট যে আজ সে বোলিংয়ে নেমেছে। তার বোলিং সেশন ছিল। তবে কাল পর্যন্ত আমরা দেখব সে কেমন বল করে। এতে করে আমরা নিশ্চিত হব যে ফিজ ঠিক আছে এবং চাপ নিতে পারছে। তবে সবচাইতে ভালো খবর হলো রোববারের মধ্যে সবাই ফিট হবে।’

বিশ্বকাপের চলতি আসরে প্রতিটি দলেই এক্স ফ্যাক্টর বোলার আছেন। যারা দলের মরণাস্ত্র বা গেম চেঞ্জারের ভূমিকায় থাকেন। কেউ পেসার কেউবা স্পিনার। যাদের আগ্রাসী এবং ঘূর্ণি যাদুতে নাকাল হয়ে হারের গ্লানি বরণ করে নেয় প্রতিপক্ষ শিবির। উদাহরণ দিয়ে বলতে গেলে ইংল্যান্ডের জোফরা আর্চার, ভারতের জাসপ্রিত বুমরাহ, কুলদ্বীপ যাদব, যুভেন্দ্র চাহাল, ওয়েস্ট ইন্ডিজের জেসন হোল্ডার, পাকিস্তানের মোহাম্মদ আমির, ওয়াহাব রিয়াজ, শ্রীলঙ্কার থিসারা পেরেরাসহ আরো অনেক নাম।

ঠিক এমন দু একটি নাম বাংলাদেশ দলেও আছে। তাহলে কে সেই লাল সবুজের বোলিং স্কোয়াড্রনের মরণাস্ত্র? না, মরনাস্ত্র খোলাশা করলেন না যুদ্ধবাজ ওয়ালশ। বরং গোপন করে গেলেন সুকৌশলে, ‘অনেকেই আছে। তবে কে সেটা বলা যাচ্ছে না। দেখা যাক কোন কন্ডিশনে কাকে কাজে লাগানো যায়।’

সং বাদ সম্মেলনের এক পর্যায়ে তামিম ইকবালের চোট নিয়ে জানতে চাওয়া হলে জবাবে কোর্টনি জানালেন, ‘আগামীকাল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। তামিমের হাতে এক্সরে করতে হবে। এরপর বিস্তারিত বলা সম্ভব।’

কার্ডিফে প্রস্তুতি ম্যাচ শেষে গত ২৯ মে লন্ডন পৌঁছেছে টিম বাংলাদেশ। দুই দিন বিশ্রামের পর আজ থেকে শুরু করেছে অনুশীলন। ২ জুন এই ভেন্যুতেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে মাশরাফি ও তার দল।

আস/এসআইসু

Facebook Comments