গাজীপুর কোনাবাড়ি ও চন্দ্রা নবনির্মিত ফ্লাইওভার উদ্বোধন করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী

গাজীপুর থেকে মনির হোসেন

ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সাসেক সড়ক সংযোগ প্রকল্পের আওতায় জয়দেবপুর-চন্দ্রা-টাঙ্গাইল-এলেঙ্গা মহাসড়কে কোনাবাড়ি ও চন্দ্রা ফ্লাইওভার এবং কড্ডা-১ সেতু ও বাইমাইল সেতু উদ্বোধন করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ শনিবার সকাল ১০ ঘটিকায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এসব উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।

কোনাবাড়ি ও চন্দ্রা ফ্লাইওভার নির্মাণের ফলে ঢাকা-টাঙ্গাইল, উত্তরবঙ্গের ২৩টি জেলার ১১৭টি রুটের ঈদে ঘরমুখী মানুষের বাড়ি যেতে এখানকার দীর্ঘদিনের যানজট, দুর্ভোগ থেকে মুক্তি পাবে বলে আশাবাদী এ রুটে চলাচলকারী মানুষ।

কোনাবাড়ীতে নির্মিত চার লেনবিশিষ্ট ৪০টি স্প্যানের উড়ালসড়কের দৈর্ঘ্য ১ হাজার ৬৪৫ মিটার, প্রস্থ ১৮ দশমিক ২০ মিটার। এর নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে ২১০ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। অন্যদিকে কালিয়াকৈরের চন্দ্রায় নির্মিত সাতটি স্প্যানের উড়ালসড়কের দৈর্ঘ্য ২৮৮ মিটার, প্রস্থ ১৮ দশমিক ২০ মিটার।

মহাসড়কের গাজীপুরের কড্ডায় দুই লেনের সেতুর পাশে নির্মিত সেতুটির দৈর্ঘ্য ৭০ মিটার, প্রস্থ ১৪ দশমিক ৭১৫ মিটার। এটি দুই স্প্যানের।
জয়দেবপুর ভোগড়া বাইপাস মোড় থেকে কালিয়াকৈর বাইপাস মোড় পর্যন্ত প্রায় ১৯ কিলোমিটার মহাসড়ক ফোর লেনে উন্নীতকরণ, ব্রিজ ও ফ্লাইওভার নির্মাণ কাজ শেষ করার নির্ধারিত তিন বছর সময় গত ডিসেম্বরে শেষ হয়েছে। কিন্তু নির্ধারিত সময়ে প্রকল্পের কাজ শেষ না হওয়ায় আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে এ অংশের কাজ সমাপ্ত করার সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়েছে। এরই মধ্যে দুটি ফ্লাইওভার ছাড়া কড্ডা ও বাইমাইল এলাকায় ব্রিজ দুটি নির্মাণ কাজও সমাপ্ত হয়েছে। তবে মহাসড়ক চার লেনে উন্নীত করণ ও সংস্কার কাজ চলমান রয়েছে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments