গাজীপুরে অবৈধ মদ বিক্রেতারা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসায় চারজনকে রিক্সা উপহার দিল গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ

গাজীপুর থেকে মনির হোসেন

গাজীপুরে অবৈধ মদ উৎপাদন ও বিক্রি ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার প্রতিশ্রুতি দেয়ায়, ৪ জনকে রিক্সা উপহার প্রদান করেছে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ। একই গ্রামের আরও ৭০টি পরিবারের সদস্যরা চোলাই মদ তৈরি করবো না বলে অঙ্গীকার করেছে।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে সদর থানায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে বৃহস্পতিবার দুপুরে তাদের হাতে রিক্সা গুলো হস্তান্তর করা হয়। রিক্সা উপহার পাওয়া ব্যক্তিরা হলো- গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের বন (২৩ নং ওয়ার্ড) গ্রামের চন্দ্র মোহনের ছেলে সুশীল বর্মণ (৩৫), ধীরেন্দ্র বর্মনের ছেলে দুর্জয় বর্মণ (২২), দেবেন্দ্র বর্মণের ছেলে মঙ্গল বর্মণ (৪৫) এবং হীরেন্দ্র চন্দ্র বর্মণের ছেলে বিশ্বনাথ চন্দ্র বর্মণ (৪৮)।

গাজীপুর সদর থানার ওসি সমীর চন্দ্র সূত্রধর জানান, বন গ্রামের প্রায় ৭০ টি পরিবারের সদস্যরা দীর্ঘদিন যাবৎ চোলাই মদ তৈরি ও বিক্রিয়ের ব্যবসা করে আসছিল। পুলিশ একাধিকবার অভিযান পরিচালনা করে বিপুল পরিমাণ মদ তৈরির সরঞ্জামাদি ও কারখানা ধ্বংস করলেও নির্মূল করা সম্ভব হয়নি। তিনি আরো জানান, গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ আনোয়ার হোসেনের কাছে ওই গ্রামের প্রায় শতাধিক নারী-পুরুষ আত্মসমর্পণ করে এবং অবৈধ মদর ব্যবসা আর করবে না বলে অঙ্গীকার করে। স্বাভাবিক ভাবে জীবন-যাপনে ফিরে আসায় ওই গ্রামের ৪ ব্যক্তিকে ৪টি রিক্সা উপহার দেওয়া হয়। রিক্সা হস্তান্তর অনুষ্ঠানে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী কমিশনার আবু লাইচ ইলিয়াস মোঃ জিকু, ওয়ার্ড কাউন্সিলর মঞ্জুরুল ইসলাম ও সদর থানার ওসি সমীর চন্দ্র সূত্রধরসহ পুলিশের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আস/এসআইসু

Facebook Comments