গাইবান্ধায় দূর্যোগ ব্যবস্থা কমিটির সভায় মিথ্যা বলায় মন্ত্রীর সামনেই নির্বাহী প্রকৌশলীকে ঝড়লেন- ডেপুটি স্পিকার

আল কাদরী কিবরীয়া সবুজ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি

মিথ্যা বলায় মন্ত্রীর সামনেই জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরে নির্বাহী প্রকৌশলীকে ঝাড়লেন ডেপুটি স্পিকার এ্যাডঃ ফজলে রাব্বী মিয়া। শুক্রবার (১৯ জুলাই) দুপুরে এমন দৃশ্যরই অবতারণা হয় গাইবান্ধা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির বিশেষ সভায়। গাইবান্ধা পৌঁছে প্রথমেই জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির বিশেষ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান। সভার শুরুতেই দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বিভিন্ন বিভাগ ও সংস্থার প্রতিনিধির কাছে বন্যায় ক্ষয়ক্ষতি এবং ত্রাণ কার্যক্রম সম্পর্কে জানার পাশাপাশি দুর্গতদের চাহিদার বিষয়টি জানতে চান।

গাইবান্ধার জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতরের নির্বাহী প্রকৌশলী আমিনুল ইসলাম চৌধুরী মাইক্রোফোন হাতে নিয়ে শুরু করেন তার কার্যক্রমের বর্ণনা।
এক পর্যায়ে তিনি বলেন, ‘ফুলছড়িতে বাঁধে আশ্রয় নিয়েছে অসংখ্য বন্যা দুর্গত মানুষ, সেখানে তাদের জন্য নলকূপের পাশাপাশি ৫০টি শৌচাগার নির্মাণ করা হয়েছে।’ প্রতিমন্ত্রী, উপমন্ত্রী, সচিবসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সামনে বড় গলায় নিজের সাফল্যের গান গাইলেন। এতে খোদ ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়ার তোপের মুখে পড়েন গাইবান্ধা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতরের নির্বাহী প্রকৌশলী আমিনুল ইসলাম চৌধুরী।

নির্বাহী প্রকৌশলীকে উদ্দেশ্য করে ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া বলেন, আমিতো বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) সন্ধ্যা পর্যন্ত খবর নিয়েছি। আপনি নলকূপ বসিয়েছেন পাঁচটি। শৌচাগার নির্মিত হয়নি একটিও। মিথ্যা বলবেন না। ডোন্ট টেল এ লাই। কেন মিথ্যা বলছেন?’ নির্বাহী প্রকৌশলী আমিনুল ইসলাম চৌধুরীকে ভর্ৎসনা করে ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া প্রতিবাদ জানানোর সময় সমস্বরে সভার পেছন থেকে ভেসে আসে, ‘স্যার উনি (আমিনুল ইসলাম) একজন মিথ্যাবাদী’। হটাৎ উত্তপ্ত সভাকক্ষ। পরিস্থিতি দ্রুত নিয়ন্ত্রণে নিয়ে এলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক, পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম।

এ সময় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান বলেন, ‘যেহেতু নির্বাহী প্রকৌশলীর বক্তব্য নিয়ে বিতর্ক উঠেছে তাই আমি বলব, আজকের মধ্যেই তিনি সরেজমিনে পরিদর্শনে যাবেন এবং কতগুলো শৌচাগার এবং নলকূপ বসেছে মন্ত্রণালয়কে জানাবেন।’

ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক রোকসানা বেগমের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন- ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া, জাতীয় সংসদের হুইপ মাহাবুব আরা বেগম গিনি, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ে সিনিয়র সচিব মো. শাহ্ কামাল, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দীসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

আস/এসআইসু

Facebook Comments